৫২ তম বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বের দ্বিতীয় দিনেও মুসল্লিদের ইজতেমামুখী ঢল অব্যাহত রয়েছে। রাজধানী ঢাকাসহ আশেপাশের জেলার মুসল্লিরা দ্বিতীয় পর্বের আখেরি মোনাজাতে অংশ নিতে ইজতেমামুখী হচ্ছেন।

আগামীকাল রবিবার আখেরি মোনাজাতের মধ্যদিয়ে এ বছরের দুই পর্বের ইজতেমার সমাপ্তি ঘটবে। দ্বিতীয় পর্বের ইজতেমায় ইতিমধ্যে ২ জন মুসল্লি মারা গেছেন বলে জানা গেছে। শ্বাসকষ্টজনিত কারণে শুক্রবার রাতে জয়নাল অবেদীন (৬৯) নামে এক মুসল্লির মৃত্যু হয়। তার পিতার নাম মৃত সৈয়দ আলী মুন্সি।

- বিজ্ঞাপন -

কিশোরগঞ্জ জেলার কুলিয়ারচর থানার ডোমারকান্দা গ্রামে তার বাড়ি। টঙ্গী সরকারী হাসপাতালের আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার (আরএমও) ডা: পারভেজ রহমান বাসসকে এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। মৃত্যুবরণকারী অপর মুসল্লি হলেন মালয়েশিয়ান প্রবাসী শফিকুল ইসলাম (৩৫)। তার গ্রামের বাড়ি সিরাজগঞ্জ জেলায়। ঢাকা রেলওয়ে সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) মো. ওমর ফারুক বাসসকে জানান, তিনি মালয়েশিয়া থাকতেন। ১৭ জানুয়ারি ভোরে ধীরাশ্রম রেলক্রসিং এলাকায় ট্রেন থেকে পড়ে গিয়ে তার মৃত্যু হয়।

৫২তম বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্বে ৮ মুসল্লির মৃত্যু হয়েছে। তারা হলেন- জানু ফকির (৬৭), তারা মিয়া (৫৪), সাহেব আলী (৪১), ফজলুল হক (৫৯), আব্দুস সাত্তার (৬৪), বেদন মিয়া (৬৩), হোসেন আলী (৫৮) ও বাবুল মিয়া (৬৫)। আর দুই পর্ব মিলে ১০ জন মারা গেছেন। দ্বিতীয় পর্বের দ্বিতীয় দিনের ধর্মীয় আলোচনা বাদ ফজর দিল্লির মাওলানা জামশেদের বয়ানের মধ্যদিয়ে শুরু হয়। মুসল্লি, আলেম-ওলামা ও তাবলীগ অনুসারীদের উদ্দেশে সকাল ১০টায় বিশেষ বয়ান শুরু করেন দিল্লি জামে মসজিদের খতিব মাওলানা সা’দ কান্ধলভী।

বাদ যোহর বয়ান করেন বিশ্ব তাবলীগ জামাতের সাবেক আমির মাওলানা যোবায়ের হাসানের পুত্র মাওলানা মুরসালিন। বাদ আছর বয়ান করেন মাওলানা সা’দ এর পুত্র মাওলানা ইউসুফ ও বাদ মাগরিব বয়ান করেন দিল্লি মারকাজের আমির মাওলানা সা’দ।

২০ জানুয়ারি শুক্রবার থেকে শুরু হয়েছে তিন দিনে ব্যাপী বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব। দ্বিতীয় পর্বে বাংলাদেশের ১৭টি জেলার ধর্মপ্রাণ মুসল্লি ও তাবলীগ অনুসারী দলের সদস্যরা যোগদান করেছেন। বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বের বিশ্বের ৬৫টি দেশের প্রায় ১২ হাজার বিদেশী অতিথিরা অংশ নিয়েছেন। প্রথম পর্বে বিশ্বের প্রায় শতাধিক দেশ থেকে বাংলাদেশে আসা প্রায় ৯ হাজার বিদেশী মুসল্লি অংশ নিয়েছিল। -বাসস।