এমপি গাজীর কার্যালয়ে ছাত্রলীগকর্মী গুলিবিদ্ধ

কাগজ অনলাইন প্রতিবেদক: নারায়ণগঞ্জের সংসদ সদস্য গাজী গোলাম দস্তগীরের ঢাকার পল্টনের ব্যবসায়িক কার্যালয়ে গুলিবিদ্ধ হয়েছেন ছাত্রলীগের স্থানীয় এক কর্মী।

সোমবার সন্ধ্যায় পুরানা পল্টনের কালভার্ট রোডের ওই কার্যালয় থেকে মোশাররফ হোসেন ভূইয়া (২১) নামে ওই যুবককে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়।

- বিজ্ঞাপন -

ডিএমপির মতিঝিল বিভাগের উপ-কমিশনার আনোয়ার হোসেন  বলেন, “সাংসদ গাজী গোলাম দস্তগীরের পল্টনের গাজী ট্যাংকের অফিসে সন্ধ্যায় ওই যুবক গুলিবিদ্ধ হয়েছেন বলে জানতে পেরেছি।”

রূপগঞ্জে আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য গাজী দস্তগীর গাজী ট্যাংকের মালিক। গাজী টিভির মালিকানাও তার। তার স্ত্রী রূপগঞ্জের একটি পৌরসভার মেয়র।

নারায়ণগঞ্জের যুবলীগ নেতা পরিচয় দিয়ে আল আমিন ভূঁইয়া নামে এক ব্যক্তি হাসপাতালে বলেন, মোশাররফ ছাত্রলীগের কর্মী। তাকে গুলি করা হয়েছে।

মোশাররফকে কে গুলি করেছে কিংবা দুই পক্ষের মধ্যে গোলাগুলি হয়েছে কি না- জানতে চাইলে উপ-কমিশনার আনোয়ার বলেন, এখনও কিছু বলা যাচ্ছে না।

সংসদ সদস্য গাজী গোলাম দস্তগীরের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করেও সফল হওয়া যায়নি। তিনি সংসদ অধিবেশনে রয়েছেন বলে তার ঘনিষ্ঠরা জানিয়েছেন।

ঘটনাস্থল ওই ভবন থেকে পুলিশ কয়েকজনকে আটক করে থানায় নিয়ে গেছে। তাদের মধ্যে এমপি গাজীর এপিএস রয়েছেন বলে খবর ছড়িয়েছে।

পল্টন থানার ওসি রফিকুল ইসলাম  জিজ্ঞাসায় কয়েকজনকে আটকের কথা স্বীকার করে বলেন, “কে পিএস, কে এপিএস, সেটা আমরা নিশ্চিত না। চার-পাঁচজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্যা থানায় আনা হয়েছে।”

সেখানে একটি গুলিই হয়েছিল জানিয়ে তিনি বলেন, “দুই পক্ষোর গোলাগুলির কোনো ঘটনা ঘটেনি।”

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির উপ-পরিদর্শক মো. বাচ্চু মিয়া বলেন, সন্ধ্যা ৬টার পরপরই মোশাররফকে পেটে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় হাসপাতালে আনা হয়।

“যারা তাকে হাসপাতালে নিয়ে এসেছে, তারা তাকে ভর্তি নিয়ে ব্যস্ত রয়েছেন। তারা কেউ কথা বলতে চাইছেন না।”