প্রধানমন্ত্রীকে সতর্ক থাকার পরামর্শ রিজভীর

কাগজ অনলাইন প্রতিবেদক: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে তার আশপাশের লোকজন সম্পর্কে সতর্ক থাকার পরামর্শ দিয়েছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

বৃহস্পতিবার দুপুরে নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে নিয়মিত সংবাদ সম্মেলনে রিজভী এ পরামর্শ দেন।

- বিজ্ঞাপন -

বুধবার প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া বক্তব্য উদ্ধৃত করে রিজভী বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী কিছুটা হলেও উপলব্ধি করেছেন যে ১৫ আগস্টের হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে আওয়ামী লীগের নেতারাও জড়িত ছিলেন। সুতরাং অন্যদের দিকে অভিযোগ করে কোনো লাভ নেই, আপনার আশপাশের লোকদের সম্পর্কেই সতর্ক থাকুন। যে গণতন্ত্রকে বন্দী করেছেন, সেটিকে মুক্ত করুন। মানুষের নাগরিক অধিকার ফিরিয়ে দিন, ভোটের অধিকার ফিরিয়ে দিন। আপনাদের অন্তরে অম্লান আবারও একদলীয় নির্বাচনের বাসনা পরিত্যাগ করুন। সুষ্ঠু ও অবাধ নির্বাচন নিশ্চিত করতে নিরপেক্ষ সরকারের কাছে ক্ষমতা হস্তান্তর করুন।’

বাজারে সব ধরনের নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসের দাম লাগামহীন দাবি করে রিজভী বলেন, রিজভী বলেন, ‘আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর থেকে গত নয় বছর ধরে চালের বাজারে অস্থিরতা বিরাজ করছে। কারণ,সারাদেশ আওয়ামী লীগের কবজার মধ্যে। সরকারি দলের লুটপাটের কারণে চাল, চিনি, লবণ, ডাল, তেল, পেঁয়াজ-রসুন, মরিচ, কাঁচা তরিতরকারিসহ সব নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসের দাম এখন লাগামহীন। চারদিকে এখন হাহাকার চলছে।’

জিয়াউর রহমান দেশে ফিরতে বাধা দিয়েছিলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এমন বক্তব্যের জবাবে বিএনপির এই কেন্দ্রীয় নেতা বলেন, ‘তাহলে ১৭ মে ১৯৮১-তে আপনি (শেখ হাসিনা) কী করে দেশ ঢুকলেন? তখন তো স্বাধীনতার ঘোষক জিয়াউর রহমানই রাষ্ট্রক্ষমতায় ছিলেন। বরং আপনি দেশের আসার ১৩ দিনের মাথায় জিয়াউর রহমান হত্যাকাণ্ডের শিকার হলেন। মানুষ এও বিশ্বাস করে যে আপনার পথের কাঁটা ভেবে আপনার পৃষ্ঠপোষকেরা আমাদের মুক্তিযুদ্ধের শ্রেষ্ঠ সন্তান রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানকে দুনিয়া থেকে সরিয়ে দিয়েছে।’

এসময় তিনি বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান বরকতউল্লাহ বুলুকে কারাগারে পাঠানোর নিন্দা জানিয়ে বলেন, ‘এটি সরকারের প্রতিহিংসামূলক রাজনীতির বহিঃপ্রকাশ।’