মাগুরায় নদীর উপর সাঁকো তৈরি করলো ছাত্রলীগ

কাগজ অনলাইন প্রতিবেদক: মাগুরার শালিখা উপজেলায় চিত্রা নদীর ওপর জনসাধারণের চলাচলের জন্য বাঁশ দিয়ে একটি সাঁকো তৈরী করেছে স্থানীয় ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা। তারা ৩দিন ধরে পরিশ্রম করে সাঁকোটি তৈরি করে। এতে এলাকার সাধারণ মানুষ তাদের প্রশংসাও করে। জানা গেছে; গত রোববার সীমাখালী সেতুটি ভেঙ্গে যায়। একারণে নদীর দুই তীরের মানুষ সীমাহিন দূর্ভোগে পড়েন। এলাকার মানুষের এ দূর্ভোগে তাদের পাশে এসে দাঁড়িয়েছেন স্থানীয় ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা। নিজেদেরে অর্থ দিয়ে জনসেবায় নেমেছেন তারা।

এলাকাবাসির অনুদানে ৭৫টি বাঁশ সংগ্রহ করে সোমবার দিনভর স্বেচ্ছাশ্রমে তারা নদীর উপর সাময়িক চলাচলের জন্য একটি সাঁকে তৈরী করেন। এ সাঁকো দিয়ে পারাপার হতে পেরে এলাকাবাসি এই সাঁকো তৈরীর উদ্যোক্তাদের ধন্যবাদ জানান। তারা জানান, এধরনের কাজে এলাকাবাসী খুবই খুশি।

- বিজ্ঞাপন -

শালিখা উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি কুতুব উদ্দিন আহমেদ জানান এলাবাসির দূর্ভোগ লাঘবে আমরা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা এ সাঁকো তৈরী করেছি। সাঁকো তৈরিতে আমাদের নেতা কর্মীরা নিজেদের অর্থ খরচ করেছেন।
পাশাপাশি আমাদের সঙ্গে এলাকাবাসিও যোগ দেন। তারা বিভিন্ন জনের বাড়ি বাড়ি গিয়ে একটি দুটি করে ৭৫টি বাঁশ অনুদান হিসেবে গ্রহণ করা হয়। সারাদিন বাশ কেটে নিজেরাই তৈরি করে ফেলি সাঁকোটি। সন্ধ্যায় জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক পংকজ কুন্ডু, যুগ্ম সম্পাদক এ্যাড. কামাল হোসেন, মুন্সি ইসরাইল হোসেনসহ নেতৃবৃন্দ সাঁকোটি দেখতে ওই এলাকায় যান। তারা ছাত্রলীগের এই সমাজ সেবামূলক কাজের ভ‚য়সী প্রশংসা করেন।

এব্যাপারে মাগুরার সন্তান বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সহসভাপতি ডা. তোফাজ্জল হক চয়ন জানান, আমাদের এলাকার ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা এধরনের সমাজসেবামূলক কাজ প্রায়ই করছেন। তারা বঙ্গবন্ধু ও দেশরতœ শেখ হাসিনার আদর্শে অনুপপ্রণিত হয়ে এলাকার মাটি ও মানুষের জন্যে কাজ করছেন। তিনি বলেন, যেখানে মানুষের সমস্যা সেখানেই ছাত্রলীগ এগিয়ে যাচ্ছে। সহায়তার হাত বাড়িয়ে দিচ্ছে।