যুবকদের কি তুলে নিয়ে জঙ্গি বানিয়ে হত্যা: ফখরুল

কাগজ অনলাইন প্রতিবেদক: র‍্যাবের হাতে গ্রেপ্তারের পর মো. হানিফ মৃধা কিভাবে মারা গেলেন সে বিষয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে জানতে চেয়েছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি প্রশ্ন করেন, এ ধরনের যুবকদের তুলে নিয়ে গিয়ে জঙ্গি বানিয়ে হত্যা বা জঙ্গিবাদকে প্রকাশ করা হচ্ছে কি না।

আজ সোমবার দুপুরে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি মিলনায়তনে এক আলোচনা সভায় মির্জা ফখরুল এ কথা বলেন। স্বাধীনতা সংগ্রামে শহীদ জিয়ার ভূমিকা ও বর্তমান রাজনৈতিক প্রেক্ষাপট শীর্ষক’ আলোচনা সভার আয়োজক ন্যাশনাল পিপলস পার্টি (এনপিপি)।

- বিজ্ঞাপন -

ফখরুল বলেন, আমি অত্যন্ত স্পষ্টভাবে ব্যাখ্যা দাবি করছি, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে, কোনটি সত্য? র‍্যাবের ব্যাখ্যা সেটি সত্য, নাকি পরিবারের দাবি সত্য? যদি পরিবারের দাবি সত্য হয়ে থাকে, তাহলে আমরা কোন দেশে বাস করছি? সরকারের একটি আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী, যাদের দায়িত্ব হচ্ছে জনগণের নিরাপত্তা দেওয়া, সঠিক তথ্য জাতির কাছে তুলে ধরা, তাহলে এটা কী?

এই ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত দাবি করে বিএনপির এই নেতা বলেন, একটা নয়, অসংখ্য ঘটনা এ রকম ঘটছে। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী বলেছ এক কথা, পরিবার বলছে তুলে নেওয়া হয়েছে। পরিবারগুলোর দাবি যদি সঠিক হয়, তাহলে কি আমরা এই দাবি করতে পারি যে একটা অত্যন্ত গভীর ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে। এই লোকগুলোকে তুলে নিয়ে গিয়ে পরবর্তী সময়ে তাদের জঙ্গি বানিয়ে হত্যা করা হচ্ছে বা জঙ্গিবাদকে প্রকাশ করার জন্য তাদের ব্যবহার করা হচ্ছে? এটা কিন্তু খুব গুরুতর প্রশ্ন।

উল্লেখ্য, গত শুক্রবার জুমার নামাজের সময় রাজধানীর আশকোনায় র‌্যাবের নির্মাণাধীন সদর দফতরে আত্মঘাতী বোমা বিস্ফোরণে হামলাকারী যুবক নিহত এবং দুই র‌্যাব সদস্য আহত হন।

র‌্যাবের ভাষ্যে, এ ঘটনার পর আশকোনা থেকে সন্দেহভাজন হিসেবে আটক হানিফ মৃধা হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান।