ষোড়শ সংশোধনী: রায় নিয়ে দেশের মানুষ উদ্বিগ্ন: হানিফ

কাগজ অনলাইন ডেস্ক: সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায় নিয়ে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ বলেছেন, এ রায় নিয়ে দেশের মানুষ উদ্বিগ্ন।
আজ শনিবার দুপুরে রাজশাহীতে সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদবিরোধী প্রশিক্ষণ ও শোক দিবস উপলক্ষে বিশেষ দোয়া ও দাওয়াতি মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন তিনি।

মাহবুব উল আলম হানিফ বলেন, দেশের জনগণ আজ উদ্বিগ্ন। এই ষোড়শ সংশোধনী নিয়ে দেশের মধ্যে একটা আলোচনার সৃষ্টি হয়েছে। একটা বিভ্রান্তির সৃষ্টি হয়েছে। আমি আদালতের রায় নিয়ে কোনো কথা বলতে চাই না। কিন্তু আদালতের বিচার্য বিষয়ের বাইরে পর্যবেক্ষণের কথা বলে জাতির মধ্যে যে বিতর্কের সৃষ্টি করা হয়েছে, সেই কথাটা আমি বলতে চাই।

- বিজ্ঞাপন -

প্রধান বিচারপতিকে ইঙ্গিত করে হানিফ বলেন, রায়ের পাশে পর্যবেক্ষণে অনেক কথা বলেছেন। সংসদ নিয়ে কটাক্ষ করা হয়েছে। সংসদ নিয়ে বলেছেন যে সংসদ সদস্যরা অপরিপক্ব। তারা নিজেরাই (এমপিরা) যোগ্য কি না, এটা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। আজ যে এই রায় দিচ্ছেন, আপনারা কার দ্বারা নিয়োজিত? কার দ্বারা নিয়োগপ্রাপ্ত? এই সংসদের মাধ্যমে গঠিত সরকার, সেই সরকারের রাষ্ট্রপতি দ্বারা নিয়োগপ্রাপ্ত। যদি সংসদ সদস্যরা অযোগ্য ব্যক্তি হন, তাহলে আপনারা অযোগ্য ব্যক্তির দ্বারা নিয়োগপ্রাপ্ত হয়ে এখানে কথা বলছেন।

হানিফ বলেন, ষোড়শ সংশোধনীর একটা অনুচ্ছেদে ছিল, ‘কোনো বিচারপতি যদি শারীরিকভাবে অসামর্থ্য বা তার বিরুদ্ধে কোনো অনৈতিক অভিযোগ প্রমাণিত হয়, তবে তদন্ত কমিটির মাধ্যমে সংসদে এলে সেখানে আলোচনার মাধ্যমে ওই বিচারপতিকে অপসারণের ক্ষমতা সংসদ রাখতে পারে। এই সংসদ জনগণের প্রতিনিধিত্ব করে। ষোড়শ সংশোধনীর মাধ্যমে জনগণের ক্ষমতাকে হরণ করা হলো।

তিনি আরও বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর নির্দেশে আমরা মুক্তিযুদ্ধ করেছিলাম। এখানে জাতির পিতার বাইরে অন্য কারও কথা বলার কোনো সুযোগ নেই। এই একক নেতৃত্বের বিরুদ্ধে যারা কথা বলতে চান, তারা মূলত স্বাধীনতার ইতিহাসকে বিকৃত করার চক্রান্তে লিপ্ত হয়েছেন। আমরা পরিষ্কারভাবে জানিয়ে দিতে চাই, সাংবিধানিক পদে থেকে আপনি ইতিহাস বিকৃতি করবেন, এটা বাংলাদেশের জনগণ কখনো মেনে নেবে না।