মিয়ানমারকে চাপ দিতে ইরানের প্রতি স্বাস্থ্যমন্ত্রীর আহ্বান

আগের সংবাদ

সাদমানের সেঞ্চুরিতে লিড নিল বাংলাদেশ 'এ' দল

পরের সংবাদ

গ্রেপ্তারি পরোয়ানা সরকারের কূটচাল : বিএনপি

প্রকাশিত হয়েছে: অক্টোবর ১২, ২০১৭ , ৭:০৫ অপরাহ্ণ | আপডেট: অক্টোবর ১২, ২০১৭, ৭:০৫ অপরাহ্ণ

চিকিৎসা শেষে দেশে ফেরার প্রাক্কালে খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে ধারাবাহিকভাবে তিনটি মামলায় গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারিকে সরকারের ‘কূটচাল’ হিসেবে দেখছে বিএনপি।

বৃহস্পতিবার বিকেলে এক সংবাদ সম্মেলনে দলটির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেন, ‘লন্ডনে বিএনপি চেয়ারপারসনের চোখের অপারেশন হয়েছে। সেখানে তিনি নিয়মিত চেকআপে আছেন এবং ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী তিনি দেশে ফিরবেন। তাঁর দেশে ফিরতে আর বেশি বিলম্ব হবে না।’

‘ঠিক এ মুহূর্তে জামিন বাতিল করে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি সরকারের ক্রমাগত কুটিল ছক বাস্তবায়নের একটি অংশ। বেগম খালেদা জিয়ার জামিন বাতিল করে তাঁর বিরুদ্ধে যে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছে, তা বর্তমান সরকারের সর্বোচ্চ স্থানের হুকুমে হয়েছে বলে দেশবাসী বিশ্বাস করে।”

রাজধানীর নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

সরকার বিচারবিভাগকে একক কর্তৃত্বে নিতে কাজ করছে দাবি করে বিএনপির এই নেতা বলেন, ‘রাষ্ট্রযন্ত্র ব্যবহার করে সর্বোচ্চ আদালতকে নতজানু রাখার নীতি চলমান রাখতে সরকারপ্রধান রাজনৈতিক প্রতিপক্ষ বিএনপিসহ বিরোধী দলগুলোকে দমন করার অপচেষ্টায় সর্বশক্তি নিয়োগ করেছেন।’

তিনি বলেন, ‘ওয়ারেন্ট ইস্যু হওয়ার সাথে সাথেই যুবলীগ-ছাত্রলীগের মিছিল প্রমাণ করে যে, সরকারের প্রত্যক্ষ নির্দেশেই বিএনপি চেয়ারপারসনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা ইস্যু করা হয়েছে। কারসাজির নির্বাচনসহ একের পর এক সরকারের উদ্দেশ্যপ্রণোদিত কর্মসূচি সফল করতে বিএনপি চেয়ারপারসনকে নিয়ে সরকারের নানামুখী সুক্ষ্ম কুটকৌশল দেশবাসীর বুঝতে বাকী নেই।’

খালেদা জিয়াকে হয়রানি করে কোন পাতানো নির্বাচন করতে দেওয়া হবে না মন্তব্য করে রিজভী বলেন, ‘দল নিরপেক্ষ সহায়ক সরকারের অধীনে একটি অবাধ ও অংশগ্রহণমূলক নির্বাচনেই কেবলমাত্র বিএনপিসহ ২০ দলীয় জোট ও গণতন্ত্রকামী রাজনৈতিক দলসমূহ অংশগ্রহণ করবে।’

তিনি খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানার নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে অবিলম্বে তা প্রত্যাহারের জোর দাবি জানান।