প্রশ্ন ফাঁসের বিরুদ্ধে ‘কঠোর হুঁশিয়ারি’ শিক্ষামন্ত্রীর

আগের সংবাদ

প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য দেশকে সংকটের দিকে নিয়ে যাবে : ফখরুল

পরের সংবাদ

ডিএনসিসি নির্বাচন: জনসংযোগে ব্যস্ত সাকি

প্রকাশিত হয়েছে: জানুয়ারি ১২, ২০১৮ , ৯:৫২ অপরাহ্ণ | আপডেট: জানুয়ারি ১২, ২০১৮, ৯:৫২ অপরাহ্ণ

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন (ডিএনসিসি) উপনির্বাচন মেয়র পদে লড়তে জনসংযোগ করছেন গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জোনায়েদ সাকি। আজ শুক্রবার সকালের পর তিনি মোহাম্মদপুর এলাকায় বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে কুশল বিনিময় করেন।

জনসাধারণের প্রত্যাশা জানতে তার এই জনসংযোগ- এ কথা উল্লেখ করে জোনায়েদ সাকি জানান, নির্বাচনী জনসংযোগ পরিচালনার জন্য মোহাম্মদপুরে একটি অস্থায়ী কার‌্যালয় নেয়ার বিষয়ে কথা চলছে তার।

আজ বেলা ১১টার কিছু পর মোহাম্মদপুরে যান সাকি। দলীয় কর্মী-সমর্থকদের সঙ্গে নিয়ে চলতি পথে সাধারণ মানুষ ও দোকানে দোকেনে গিয়ে স্থানীয় ব্যবসায়ীদের সঙ্গে কথা বলেন। এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন বাংলাদেশ ছাত্র সংঘের সভাপতি গোলাম মোস্তফা, সৈকত আরিফ, পারভেজ হাসান সুমন প্রমুখ।

জনসংযোগকালে সঙ্গে কথা হয় জোনায়েদ সাকির। নিজের প্রচারণার বিষয়ে তিনি বলেন, ‘মাত্র নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা হয়েছে। তাই প্রচারণার কোনো সুযোগ নেই।’ তিনি কেবল মানুষের সঙ্গে কুশল বিনিময় করছেন। নির্বাচন নিয়ে মানুষের ভাবনা বোঝার চেষ্টা করছেন।

গতবারের অভিজ্ঞতার আলোকে সাকি আশা করছেন, বর্তমান নির্বাচন কমিশন সুষ্ঠুভাবে নির্বাচন আয়োজন করতে পারবে। তবে নির্বাচনের পরিবেশটা কেমন হবে তা সামনের দিনগুলোতে বোঝা যাবে বলে মন্তব্য করেন তিনি।

সাকি আশা করেন, সুষ্ঠুভাবে নির্বাচন আয়োজন ও পরিবেশ অনুকূল হলে নাগরিকরা তাদের ভোটের অধিকার প্রয়োগ করে মেয়র নির্বাচিত করতে পারবে।

নির্বাচনকে কেন্দ্র করে কোনো নেতিবাচক ঘটনা যাতে না ঘটে, নির্বাচন কমিশনকে সে দিকে সজাগ থাকতে হবে বলে মনে করেন সাকি। তিনি বলেন, ‘আমার নির্বাচনে অংশ নেয়া মানে কেবল নির্বাচনে অংশ নেয়া না। নির্বাচনী ব্যবস্থাকে একটি গণতান্ত্রিক নির্বাচনী ব্যবস্থায় পরিণত করার লড়াইয়ে অংশ নেয়া। সেই জায়গা থেকে আমরা চেষ্টা করব যেকোনো ধরনের নেতিবাচক ঘটনার বিরুদ্ধে লড়াই করার।’

‘তেল, গ্যাস, বিদ্যুৎ, বন্দর রক্ষা’ আন্দোলনের একজন সংগঠক জোনায়েদ সাকি দ্বিতীয়বারের মতো লড়বেন ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র পদের নির্বাচনে। এর আগে ২০১৫ সালে ঢাকা উত্তর সিটির প্রথম নির্বাচনে ৭ হাজার ৩৭০ ভোট পেয়েছিলেন তিনি। তবে কারচুপির অভিযোগ এনে নির্বাচন বর্জন করেছিলেন ‘ইয়াং আইকন’ খ্যাত জোনায়েদ সাকি।