বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশান অফ সেন্ট্রাল ওহাইওর নতুন কমিটি : ফয়সাল সভাপতি মনি সাধারন সম্পাদক

আগের সংবাদ

বাগদাদে আত্মঘাতী বোমা হামলায় ৮ জন নিহত

পরের সংবাদ

ঘন কুয়াশা-তীব্র শীত উপেক্ষা করে ইজতেমামুখী মুসল্লিরা

প্রকাশিত হয়েছে: জানুয়ারি ১৪, ২০১৮ , ১০:৩৭ পূর্বাহ্ণ | আপডেট: জানুয়ারি ১৪, ২০১৮, ১০:৩৭ পূর্বাহ্ণ

ঘন কুয়াশা, ঠান্ডা বাতাস, কনকনে শীতকে উপেক্ষা করে তুরাগতীরের ইজতেমা ময়দানে লাখো মানুষের জমায়েত । চলছে বয়ান, জিকির-আসকার, ইবাদত-বন্দেগি। কনকনে শীত উপেক্ষা করে আখেরি মোনাজাতে অংশগ্রহনের লক্ষে মুসল্লিদের স্রোত এখন ইজতেমা ময়দানমুখী।

আজ (রবিবার) বেলা ১১টায় আখেরি মোনাজাতের মধ্যদিয়ে শেষ হবে বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্ব। এবারের মোনাজাত হবে বাংলায়, পরিচালনা করবেন মাওলানা মো. জোবায়ের। এর আগে চলছে হেদায়তি বয়ান। পরিচালনা করছেন মাওলানা আব্দুল মতিন। গত শুক্রবার ফজরের নামাজের পর শুরু হয়েছে এবারের বিশ্ব ইজতেমার প্রথম দফা।

ইজতেমা উপলক্ষে রাস্তায় যানচলাচল বন্ধ থাকায় সবাই পায়ে হেঁটেই পৌঁছানোর চেষ্টা করছেন। শীত, ঘন কুয়াশাকে উপেক্ষা করে দলে দলে মুসল্লিরা যাচ্ছেন পায়ে হেঁটে, পাঞ্জাবি-টুপি পরে সেই সঙ্গে কারও কারও হাতে জায়নামাজ, তসবিহ। তাদের লক্ষ্য আখেরি মোনাজাতে অংশ নেয়া।

আখেরি মোনাজাতে নিরাপত্তার বিষয়ে গাজীপুরের পুলিশ সুপার হারুন আর রশিদ জানান, আখেরি মোনাজাতের পর মুসল্লিদের বাড়ি ফেরা পর্যন্ত ইজতেমা ময়দানসহ আশপাশের এলাকায় পুলিশের সাত হাজারের বেশি পুলিশ নিয়োজিত থাকবে। এছাড়া সাদা পোশাকে মুসল্লিদের বেশে খিত্তায় খিত্তায় পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।

এদিকে মোনাজাতে অংশ নিতে মুসল্লিদের যেন সমস্যা না হয় সেজন্য আজমপুর, উত্তরাসহ আশ-পাশের ১০ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে মাইকের বিশেষ ব্যবস্থা করা হয়েছে।

প্রথম পর্বের ইজতেমায় ৫০টি দেশের আট হাজার এবং দেশের ১৪টি জেলার কয়েক লাখ মানুষ অংশ নিচ্ছেন। এছাড়া আখেরি মোনাজাতে অংশ নেয়া মুসল্লির সংখ্যা হিসাব করলে এ সংখ্যা আরও অনেক বাড়বে।

চার দিন বিরতির পর আবার ১৯ জানুয়ারি শুরু হবে ইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব। ২১ জানুয়ারি আখেরি মোনাজাতের মধ্যদিয়ে শেষ হবে এবারের বিশ্ব ইজতেমার আনুষ্ঠানিকতা।

বিষয়: