Bhorer Kagoj logo
ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৮ই জুলাই, ২০১৯ ইং | ৩রা শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ১৪ই জিলক্বদ, ১৪৪০ হিজরী

শীতে চাই শাল


প্রকাশঃ ০৯-১২-২০১৬, ১:১৭ অপরাহ্ণ | সম্পাদনাঃ ০৯-১২-২০১৬, ১:১৭ অপরাহ্ণ

shal20161209124044কাগজ অনলাইন ডেস্ক: শীতের হাওয়ার কাঁপন জানান দিয়ে যাচ্ছে যে শীত চলে এসেছে। পৌষ এবং মাঘ এই দুই মাস শীতকাল। চারিদিকের হিম হিম বাতাসের সাথে গরম কাপড় আর গরম চা ছাড়া যেন সকালটাই জমে না। এই শীতের মৌসুম ফ্যাশন প্রিয় মানুষদের কাছে খুবই পছন্দের একটি সময়। শীতের হরেক ফ্যাশনের মধ্যে তরুণ-তরুণী সবার পছন্দের তালিকায় স্থান করে নিয়েছে শাল।

শাল নানা ধরনের হতে পারে। কোনোটি হালকা আবার কোনোটি ভারী। বহনে শাল যেমন সহজ তেমনই এটি শীতে আরামদায়ক। শালের ক্ষেত্রে খাদি শাল সবার পছন্দের শীর্ষে। এছাড়া শীতের শালের উপর উলের কাজ কিংবা নানা সুতার কাজ শাল এর মাঝে নিয়ে এসেছে নতুনত্ব।

শাল যে শুধু খাদির হয়ে তা কিন্তু নয়। বর্তমানের ফ্যাশন হাউজগুলো ফ্যাশন প্রিয় মানুষদের কথা চিন্তা করে তৈরি করছে সিল্ক, পশমি সুতা, মোটা সুতি ইত্যাদি কাপড়ের শাল। এসব চাদরে এখন আবার যুক্ত হয়েছে নানা নকশা। তাতে কখনো কখনো যুক্ত হচ্ছে পুঁতি, চুমকি এবং দুই রঙা কাপড়ের ব্যবহার। অফিসে, বিশ্ববিদ্যালয়ে কিংবা বাড়িতে সব জায়গাতেই ছেলেমেয়ে উভয়ের কাছেই শালের চাহিদা সমান।

শালের মধ্যে উল্লেখযোগ্য শাল হচ্ছে কাশ্মীরি শাল। দূর দূরান্ত থেকে মানুষ এই শাল সংগ্রহ করে। এই কাপড়ে রয়েছে উষ্ণতা তা শীতকে আপনার কাছে থেকে অনেক দূরে রাখে। শালের ক্ষেত্রে বাইরের শালের কদরও কম নয়। নানা রঙের আর ডিজাইনের শালের চাহিদা অনেক। বাইরের দেশের সঙ্গে সঙ্গে আমাদের দেশের শালের চাহিদাও কম নয়। মানুষ আগ্রহ নিয়ে দেশীয় পণ্যের প্রতি আকৃষ্ট হচ্ছে। দেশে তৈরি শালের মধ্য পশমিনা শাল উল্লেখযোগ্য।

এ ছাড়া রয়েছে লুধিয়ানা, জয়পুরি, চায়নিজ, বার্মিজ সহ আরো অনেক শাল।

শীতের শুরু থেকেই শালের গ্রহণযোগ্যতা থাকে অনেক। হালকা শীতে আপনি বাছাই করে নিতে পারেন খাঁদি, তাঁত, গ্রামীণ চেক সহ প্রিন্ট এবং এম্ব্রয়ডারি আর হাতের কাজ করা শাল। এসব শাল আপনি ঘরে পরার পাশাপাশি কাজের ক্ষেত্রে পড়ে যেতে পারেন। তবে পার্টির ক্ষেত্রে কিছুটা ভিন্ন ধরনের শাল পছন্দ করা উচিৎ। এসব জায়গার জন্য আপনার পছন্দে রাখতে পারেন সিল্কের, ফেব্রিক্সের উপর নকশিকাঁথার সহ নানা ধরনের ভারী কাজের শাল। আরেকটু জমকালো ভাব আনতে চাইলে তাতে পুঁতি কাঁচ বসিয়ে নিতে পারেন। রঙের ক্ষেত্রে সাদা-কালো, সবুজ, বাদামী, ম্যাজেন্ডা রঙ পছন্দ করতে পারেন।

শালের ক্ষেত্রে রঙের পাশাপাশি এর কাজের প্রতিও সমানভাবে নজর দিন। অনেকে কেবল রঙ আর নকশা দেখে শাল কিনে নেয়। এ কাজটি করা ঠিক নয়। শালের ক্ষেত্রে উষ্ণতার কথা সবার আগে মাথায় রাখতে হবে। আর এই শীতের হিম শীতল বাতাসকে ঢেকে নিন শালের উষ্ণ পরশে।



পাঠকের মতামত...

Top