Bhorer Kagoj logo
ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২২শে আগস্ট, ২০১৯ ইং | ৭ই ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ১৯শে জিলহজ্জ, ১৪৪০ হিজরী

বিনিয়োগের অর্থের স্বচ্ছতা জরুরি: রাষ্ট্রপতি


প্রকাশঃ ২৮-০১-২০১৭, ৩:৩৩ অপরাহ্ণ | সম্পাদনাঃ ২৮-০১-২০১৭, ৩:৩৩ অপরাহ্ণ

28-01-17-President_SAFA-Conকাগজ অনলাইন প্রতিবেদক: দেশে বিনিয়োগের অর্থের পূর্ণ ব্যবহার নিশ্চিত করতে নিরীক্ষকদের আরও দায়িত্বশীল হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ।

তিনি বলেছেন, জাতীয় অর্থনীতিতে সরকারি ও বেসরকারি খাতে যে বিপুল পরিমাণ অর্থের বিনিয়োগ হচ্ছে, তার পরিপূর্ণ ব্যবহার নিশ্চিত করতে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহি খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

“চার্টার্ড অ্যাকাউন্টেন্টগণ তাদের প্রফেশনাল নীতি ও আদর্শের প্রতি অবিচল থেকে পাবলিক ও কর্পোরেট খাতে হিসাবের স্বচ্ছতা ও জবাবদিহি নিশ্চিত করতে আরো দায়িত্বশীল ভূমিকা পালন করবেন- এ প্রত্যাশা করি।”

শনিবার রাজধানীর একটি হোটেলে সাউথ এশিয়ান ফেডারেশন অব অ্যাকাউন্টেন্টসের (সাফা) আঞ্চলিক সিএফও সম্মেলনে রাষ্ট্রপতি এ কথা বলেন।

ইনস্টিটিউট অব চার্টার্ড অ্যাকাউন্টেন্টস অব বাংলাদেশ (আইসিএবি) আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে আবদুল হামিদ বলেন, হিসাবে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতে তথ্য-প্রযুক্তির ব্যবহার অপরিহার্য। এতে তথ্যের আদান-প্রদান যেমন সহজ হয়, তেমনি জনগণও কাঙ্ক্ষিত সেবা সহজে পেতে পারে।

“প্রতিষ্ঠানের আর্থিক স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতে প্রধান নির্বাহীদের ভূমিকা খুবই গুরুত্বপূর্ণ বলে আমি মনে করি। আর্থিক কর্মকাণ্ডে সতর্কতা, স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতার অভাব প্রতিটি প্রতিষ্ঠান তথা দেশের জন্য হুমকি। এর ফলে বিভিন্ন আর্থিক প্রতিষ্ঠানে বিপুল পরিমান অর্থ জাল-জালিয়াতি হচ্ছে।”

জনগণের অর্থের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সংশ্লিষ্টদের দায়িত্বের কথা অনুষ্ঠানে স্মরণ করিয়ে দেন রাষ্ট্রপ্রধান আবদুল হামিদ।

“জনগণের অর্থের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা সকলের দায়িত্ব। একজন দক্ষ ও অভিজ্ঞ হিসাববিদ এ ক্ষেত্রে কার্যকর ভূমিকা পালন করতে পারেন। হিসাব ও নিরীক্ষার মানোন্নয়নে লাগসই তথ্য-প্রযুক্তির ব্যবহার আর্থিক স্বচ্ছতা ও অর্থের নিরাপত্তা বিধানে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখতে পারে বলে আমি মনে করি।”

রাষ্ট্রপতি বলেন, “আমি আশা করছি, এই সম্মেলনের মাধ্যমে সাফাভুক্ত দেশগুলোর পাবলিক-প্রাইভেট কোম্পানির মালিক, পরিচালক, কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ সংশ্লিষ্ট সকলের মাঝে হিসাবের স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতার বিষয়টি অগ্রাধিকার পাবে। আর্থিক প্রতিষ্ঠানে সর্বোচ্চ নিরাপত্তার সংস্কৃতি গড়ে উঠবে।”

সার্কভুক্ত দেশের সরকারগুলো ‘দারিদ্র্যের অভিশাপের’ বিরুদ্ধে লড়ছে মন্তব‌্য করে রাষ্ট্রপতি এ বিষয়ে বেসরকারি উদ্যোগের প্রয়োজনীয়তার কথা বলেন।

সেইসঙ্গে সার্ক অঞ্চলের দেশগুলোতে দেশীয় ও আন্তর্জাতিক বিনিয়োগের স্বচ্ছতা নিশ্চিত করতে নিরীক্ষকদের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ইন্টারন্যানশাল ফেডারেশন অব অ্যাকাউন্টেন্টসের (আইএফএসি) প্রধান নির্বাহী ফায়েজুল চৌধুরী।

অন্যদের মধ্যে পরিকল্পনামন্ত্রী আহম মুস্তফা কামাল, বাণিজ্য সচিব হেদায়েতুল্লাহ আল মামুন, ইন্টারন্যাশনাল অ্যাকাউন্টিং স্ট্যান্ডার্ড বোর্ডের প্রেসিডেন্ট হানস উগেরভোর্স্ট, সাফা সভাপতি এএসএম নাঈম, আইসিএবির প্রেসিডেন্ট আদিব হোসেন খান অনুষ্ঠানে বক্তব‌্য দেন।



পাঠকের মতামত...

Top