Bhorer Kagoj logo
ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২২শে আগস্ট, ২০১৯ ইং | ৭ই ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ২০শে জিলহজ্জ, ১৪৪০ হিজরী

২০২১ সাল নাগাদ আইটি খাতে রফতানি হবে ৫ বিলিয়ন ডলার


প্রকাশঃ ৩০-০১-২০১৭, ৮:৪৪ অপরাহ্ণ | সম্পাদনাঃ ৩০-০১-২০১৭, ৮:৪৪ অপরাহ্ণ

Polokকাগজ অনলাইন প্রতিবেদক: তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন, গত ৮ বছরের আইটি খাতে রফতানি হয়েছে ৭০০ মিলিয়ন ডলার। ২০১৮ সাল নাগাদ আমরা আইসিটি সেক্টর থেকে ১ বিলিয়ন ডলার রফতানি করব এবং ২০২১ সাল নাগাদ রফতানি করব ৫ বিলিয়ন ডলার। এজন্য প্রশিক্ষণ দিয়ে দক্ষ জনশক্তি তৈরি করে তথ্য-প্রযুক্তি খাতে ২০ লক্ষ তরুণ-তরুণীর কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করা হবে।

জাতীয় সংসদে সোমবার (৩০ জানুয়ারি) রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর আনীত ধন্যবাদ প্রস্তাবের ওপর আলোচনায় অংশ নিয়ে তিনি এসব কথা বলেন।

পলক বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দায়িত্ব গ্রহণ করার সময় আইটি খাতে মাত্র ২৬ বিলিয়ন ডলার রপ্তানি হয়েছিল। গত ৮ বছরের ব্যবধানে আইটি রপ্তানি বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৭০০ মিলিয়ন ডলার। মাননীয় উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয় আমাদেরকে একটি লক্ষ্য নির্ধারণ করে দিয়েছেন। ২০১৮ সাল নাগাদ আমরা আইসিটি সেক্টর থেকে ১ বিলিয়ন ডলার রপ্তানি করব।

প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, ২০২১ সাল নাগাদ যখন বাংলাদেশ স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী পালন করবে তখন বাংলাদেশ মধ্যম আয়ের দেশ হিসেবে বিশ্বের বুকে মাথা উঁচু করে দাঁড়াবে। তখন বাংলাদেশের জ্ঞানভিত্তিক একটি অর্থনিতীর ওপর দাঁড়িয়ে ৫ বিলিয়ন ডলার আমরা আইসিটি সেক্টর থেকে রপ্তানি করব।

জুনাইদ আহমেদ বলেন, আমাদের বন্ধু প্রতিম দেশ ভারত বিগত ৩০ বছরে আইটি শিল্প থেকে প্রায় দেড়শ বিলিয়ন ডলার আয় করছে। আমরা মাত্র শুরু করেছি গত ৮ বছর আগে। আমাদের বিভিন্নমুখী পরিকল্পনা, পলিসি প্রণয়ন এবং প্রকল্প গ্রহণের মধ্য দিয়ে আমরা দক্ষ মানব সম্পদ তৈরি করছি। সারাদেশে ১ লক্ষ ৭০ হাজার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ৪ কোটি ২৭ লক্ষ শিক্ষার্থীদের জন্য বিশাল পরিকল্পনা হাতে নেওয়া হয়েছে। সরকার সারা বাংলাদেশে সাড়ে ৫ হাজার কম্পিউটার ল্যাব, ২ হাজার ১টি শেখ রাসেল ডিজিটাল ল্যাব স্থাপন করেছে। আগামী ৩ বছরে প্রাইমারি, হাইস্কুল এবং কলেজ লেভেলে আরও ১৫ হাজার শেখ রাসেল ডিজিটাল ল্যাব স্থাপন করা হবে।

আলোচনায় আরো অংশ নেন-রোজী সিদ্দিকী, কামাল আহমেদ মজুমদার, শিরীন নাইম প্রমুখ।



পাঠকের মতামত...

Top