Bhorer Kagoj logo
ঢাকা, রবিবার, ২৩শে জুলাই, ২০১৭ ইং | ৮ই শ্রাবণ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ | ২৮শে শাওয়াল, ১৪৩৮ হিজরী

নকিয়া ১৫০ ডুয়াল সিমের নতুন হ্যান্ডসেট বাজারজাত করার ঘোষণা


প্রকাশঃ ৩১-০১-২০১৭, ৮:৫৪ অপরাহ্ণ | সম্পাদনাঃ ৩১-০১-২০১৭, ৮:৫৪ অপরাহ্ণ

nokiaকাগজ অনলাইন ডেস্ক: এইচএমডি গ্লোবাল ওওয়াই (এইচএমডি) বাংলাদেশের বাজারে নকিয়া ১৫০ নামে ডুয়াল সিমের নতুন একটি মোবাইল ফোন সেট বিপণনের ঘোষণা দিয়েছে। নকিয়া ফোন বিপণনের দায়িত্ব নিয়ে যাত্রা শুরু করার মাত্র কয়েক সপ্তাহের মধ্যেই এইচএমডি নতুন এই হ্যান্ডসেটটি বাজারে ছাড়ার ঘোষণা দিল।

এইচএমডি হলো নকিয়া ফোন বাজারজাতকরণের স্টার্ট-আপ বা নতুন উদ্যোক্তা প্রতিষ্ঠান, যেটির সদর দপ্তর ফিনল্যান্ডে অবস্থিত।

এই প্রতিষ্ঠান গ্রাহকদের জন্য নিউ জেনারেশন বা নতুন প্রজন্মের ফোন বাজারজাত করবে। এর মধ্যে বিদ্যমান ফিচার ফোনের বিজনেস যেমন থাকবে তেমনি অত্যাধুনিক স্মার্টফোনের সম্ভারও থাকবে। নকিয়া ১৫০ হ্যান্ডসেটের বিপণন কার্যক্রম উদ্বোধনের মধ্যে দিয়ে এইচএমডি বাজারে নকিয়া ফিচার ফোনের উপস্থিতি জোরদার করবে, ঠিক যেভাবে নকিয়া ১০৫, নকিয়া ২১৬ ও নকিয়া ২৩০- এসব হ্যান্ডসেট বেস্ট-সেলার বা সর্বাধিক বিক্রিত হওয়ার গৌরব অজর্ন করেছিল।

নতুন উদ্যোগে নকিয়া ব্র্যান্ডের প্রথম ফিচার ফোনসেট বাজারজাত করবে এইচএমডি। এই ফোনসেট দেখতে যেমন দৃষ্টিনন্দন তেমনি স্থায়িত্বের দিক থেকেও বেশ টেকসই হবে। এই সেটের আবরণে থাকবে পলিকার্বনেট শেল। এতে কোনো স্ক্র্যাচ বা দাগ পড়বে না। তাই বলা যায় নকিয়া ১৫০ হ্যান্ডসেটটি হবে টেকসই অর্থাৎ অনেক দিন টিকবে।

এই সেটে রয়েছে ডুয়াল সিম, অর্থাৎ এতে দুটি সিম ব্যবহার করতে পারবেন গ্রাহকরা। ডুয়াল সিমের এই সেটে এফএম রেডিও১ ও এমপি থি প্লেয়ার রয়েছে। নকিয়া ১৫০ সেটটির পর্দা ২.৪ ইঞ্চি এবং ডুয়াল সিমের এই সেটের কীপ্যাড খুব সহজেই ব্যবহার করা যাবে।

নকিয়া ১৫০ ফোন সেটটির ব্যাটারি বেশ দীর্ঘস্থায়ী। ফলে এতে ২২ ঘণ্টা পর্যন্ত টকটাইম পাওয়া যাবে আর স্ট্যান্ডবাই টাইম হবে ২৫ দিন। এটি চার্জ হবে মাইক্রো-ইউএসবি চার্জারে। এছাড়া ফোন সেটটিতে রয়েছে এলইডি টর্চলাইট।

নকিয়া ১৫০ হ্যান্ড সেটটির সঙ্গেই ক্ল্যাসিক ন্সেক জেনজিয়াসহ (classic Snake Xenzia) বিভিন্ন গেমস ডাউনলোড করা রয়েছে। এছাড়া গেমলফট ২ এর নিটরো রেসিং কিনে ডাউনলোড করা যাবে। এই সেটের ক্যামেরায় আছে এলইডি ফ্ল্যাশ ৩। ফলে সেটটির ব্যবহারকারীরা তাঁদের দৈনন্দিন জীবনের যেকোনো আনন্দঘন মূহুর্তগুলোর দৃশ্য ধারণ করে ব্লুটুথের মাধ্যমে পরিবার-পরিজন ও বন্ধু-বান্ধবদের সঙ্গে শেয়ার করতে পারবেন।



পাঠকের মতামত...

Top