Bhorer Kagoj logo
ঢাকা, বুধবার, ২২শে নভেম্বর, ২০১৭ ইং | ৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ | ২রা রবিউল-আউয়াল, ১৪৩৯ হিজরী

আসছে বিস্ময়কর সুবিধার স্মার্টফোন


প্রকাশঃ ০১-০২-২০১৭, ১:০০ অপরাহ্ণ | সম্পাদনাঃ ০১-০২-২০১৭, ১:০০ অপরাহ্ণ

Top20170201081757কাগজ অনলাইন ডেস্ক: স্মার্টফোনে নিত্য নতুন যুক্ত হচ্ছে আকর্ষণীয় নানা ফিচার বা সুবিধা। কেউ কাজ করছে এর ডিজাইন নিয়ে। কেউ কাজ করছে অপারেশনাল বিষয় নিয়ে।

কিন্তু কেউ কেউ অলক্ষ্যে কাজ করছেন একে আমূল বদলে ফেলতে! সেরকমই আভাস দিয়েছেন ফ্রান্সের বিখ্যাত ‘থমসন’ ইলেকট্রনিক্সের টেক ডিজাইনাররা। তারা এমন এক স্মার্টফোনের ধারণা দিয়েছেন, যা কল্পনাকেও হার মানাবে।

নতুন ধারণার এই ফোনে থাকবেনা কোনো টাচ ডিসপ্লে। অথবা ভিডিও দেখার জন্যে কোনো সাধারণ ডিসপ্লে। এটা আপনার মেসেজ বা ভিডিও দেখাবে হলোগ্রাফিকভাবে। যদিও এ বিষয়ে বিস্তারিত কিছু বলা হয়নি কিংবা এর উদ্ভাবকরা এর কোনো প্রোটোটাইপ দেখাননি। বর্তমানে শুধু এর ছবি এবং ধারণা দেয়া হয়েছে।

ডিজেন ম্যাগাজিনের সঙ্গে সাক্ষাৎকারে ‘আলো’ নামের নতুন এই ফোনের ধারণা দেন সহ উদ্ভাবক জেমি অলিভেট। জেমি অলিভেটের সঙ্গে এই ফোন ডিজাইনে সহায়তা করেছেন বিখ্যাত ডিজাইনার ফিলিপ স্টার্ক।
তাদের ভাষ্য মতে, এটা হবে সর্বাধুনিক এক ফোন যা কাজ করবে ব্যবহারকারীর কথায়। আপনি যত এই ফোনের সঙ্গে কথা বলবেন, এই ফোন ততোই আপনার ভাষা রপ্ত করবে। তাছাড়া এতে থাকবে এআই বা আর্টিফিসিয়াল ইন্টিলিজেন্স সুবিধা।

তবে সবচেয়ে চমক বোধহয় এর ডিজাইনে। দেখতে অনেকটা ডলফিনের মতো। এমনকি এর বাহ্যিক দৃশ্যও অনেকটা ডলফিনের মতো। জেমি অলিভেট বেশ জোর দিয়েই বলেছেন, এই ফোন মানুষের হাতে বেশ ভালো ভাবেই মানিয়ে যাবে। অর্থাৎ এই ফোন সহজে আপনার হাত থেকে পরে যাবে না।

তাহলে দেখতে যে পিচ্ছিল মনে হচ্ছে? এখানেও রেখেছেন বিশাল চমক। এই ফোনের বাহ্যিক আকৃতি যতই ভঙ্গুর বা পিচ্ছিল মনে হোক না কেন, এটা ন্যাচারাল রজন দিয়ে তৈরি সম্পূর্ণ আলাদা ধরনের সারফেস বা বহিরাবরণ।

আর সবচেয়ে বিস্ময়ের বিষয় হচ্ছে, আপনার হাত থেকে পরে যদি এর বহিরাবরণে কোনো ক্ষত বা ফাটল সৃষ্টি হয়, তা নাকি নিজ থেকেই দ্রুত ঠিক হয়ে যাবে! অনেকটা টারমিনেটর টু ছবির আর্নল্ড শোয়ার্নেগারের মুখের মতো! এখন অপেক্ষা কবে এই ফোন বাজারে আসবে কিংবা এর প্রোটোটাইপ তৈরি হবে।

জেমি অলিভেটের কথায় মনে হচ্ছে না খুব শিগগিরই একে দেখা যাবে। তবে যেহেতু থমসনের মতো বড় কোম্পানি এর ঘোষণা দিয়েছে তখন কিছুটা হলেও আস্থা রাখা যায়। তাই ভবিষ্যতের এই ফোন দেখার জন্যে অদূর না সুদূর ভবিষ্যৎ পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে তা ভবিষ্যৎ বলে দেবে!



পাঠকের মতামত...

Top