Bhorer Kagoj logo
ঢাকা, সোমবার, ১৭ই জুন, ২০১৯ ইং | ৩রা আষাঢ়, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ১৩ই শাওয়াল, ১৪৪০ হিজরী

রোমাঞ্চ ছড়িয়ে চেলসি-লিভারপুল ড্র


প্রকাশঃ ০১-০২-২০১৭, ১:৫১ অপরাহ্ণ | সম্পাদনাঃ ০১-০২-২০১৭, ১:৫১ অপরাহ্ণ

1+Liverpool's+Roberto+Firmiকাগজ স্পোর্টস ডেস্ক: প্রিমিয়ার লিগে শততম ম্যাচ খেলতে নেমে চমৎকার এক গোল করলেন দাভিদ লুইস। কিন্তু জয়ের আনন্দে মাঠ ছাড়তে পারেননি। চেলসির বিপক্ষে রোমাঞ্চ ছড়ানো ম্যাচে গোলরক্ষক সিমোন মিগনোলেতের দারুণ নৈপুণ্যে মূল্যবান ১ পয়েন্ট নিয়ে মাঠ ছাড়ে লিভারপুল।

প্রথমার্ধে লুইসের গোলে পিছিয়ে পড়া লিভারপুল দ্বিতীয়ার্ধে জর্জিনিয়ো ভিনালডামের লক্ষ্যভেদে সমতায় ফেরে। বাকি সময়ে মিগনোলেতের নৈপুণ্যে ১-১ সমতা রেখে মাঠ ছাড়ে তারা। দিয়েগো কস্তার পেনাল্টি শটও ঠেকান তিনি।

প্রিমিয়ার লিগে টানা দুই জয় পাওয়ার পর পয়েন্ট হারাল চেলসি। এই নিয়ে টানা চার ম্যাচ জয়শূন্য থাকল লিভারপুল। এর তিনটিতে ড্র করেছে দলটি, হেরেছে অন্যটিতে।

অ্যানফিল্ডে মঙ্গলবার শুরু থেকেই চেলসিকে চেপে ধরা স্বাগতিকরা এগিয়ে যেতে পারতো ত্রয়োদশ মিনিটে। ঝাঁপিয়ে সেবার জর্জিনিয়ো ভিনালডামের বুলেট গতির শট ঠেকান থিবো করতোয়া।

আক্রমণের প্রাথমিক ঝাপটা সামলে লিভারপুলকে চেপে ধরা অতিথিরা এগিয়ে যায় দাভিদ লুইসের আচমকা গোলে। ২৪তম মিনিটে ফ্রি-কিক থেকে লক্ষ্যভেদ করেন ব্রাজিলের এই ডিফেন্ডার।

অ্যাডাম লালানা চেলসির এডেন হ্যাজার্ডকে ফাউল করলে ফ্রি-কিক পায় চেলসি। বল বসিয়ে শট নেওয়ার জন্য পিছিয়ে যান উইলিয়ান। বলের দিকে নয় সবার নজর ছিল এই ব্রাজিলিয়ান মিডফিল্ডারের দিকে। ছুটে এসে হঠাৎ শট নেন লুইস, ফেরানোর কোনো সুযোগই ছিল না তখনও উইলিয়ানের দিকে তাকিয়ে থাকা গোলরক্ষক মিগনোলেতের।

পাঁচ মিনিট পর অতিথিরা আবার ফ্রি-কিক পেলে এবার শট নেন উইলিয়ানই। অল্পের জন্য পা ছোঁয়াতে পারেননি লুইস। ঝাঁপিয়ে কর্নারের বিনিময়ে বাঁচান লিভারপুল গোলরক্ষক।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই সমতা ফেরানোর দারুণ সুযোগ পায় লিভারপুল। উইলিয়ানের হারানো বলে ৪৯তম মিনিটে ক্রসবারের ওপর দিয়ে মেরে সুবর্ণ সুযোগ হাতছাড়া করেন ফিরমিনো।

তিন মিনিট পর ভিক্তর মোসেসের শট পোস্টে লেগে বাইরে গেলে নষ্ট হয় চেলসির আরেকটি সুযোগ।

একের পর এক আক্রমণের সুফল পেতে বেশি দেরি হয়নি লিভারপুলের। জেমন মিলনারের হেডে বল পেয়ে ৫৭তম মিনিটে সমতা ফেরান ভিনালডাম। খুব কাছ থেকে হেডে গ্যালারিকে উল্লাসে মাতান তিনি।

৭৪তম মিনিটে খলনায়ক হতে বসেছিলেন ভিনালডাম। ডি বক্সে তিনি দিয়েগো কস্তাকে ফাউল করলে পেনাল্টি পায় অতিথিরা। নিজেই শট নেন স্প্যানিশ স্ট্রাইকার। বাঁদিকে ঝাঁপিয়ে আবারও লিভারপুলের ত্রাতা মিগনোলেত।

২০১৪ সালের নভেম্বরের পর থেকে প্রিমিয়ার লিগে চেলসির কাছে হারেনি লিভারপুল। চলতি মৌসুমে দুই দলের আগের দেখায় প্রতিপক্ষের মাঠে ২-১ গোলে জিতেছিল দলটি।

এই ড্রয়ের পরও ২৩ ম্যাচে ৫৬ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে রয়েছে চেলসি। ৪৬ পয়েন্ট নিয়ে চার নম্বরে রয়েছে লিভারপুল।

দিনের অন্য ম্যাচে ঘরের মাঠে ওয়াটফোর্ডের কাছে ২-১ ব্যবধানে হেরে তিন নম্বরে নেমে গেছে আর্সেনাল। সমান ৪৭ পয়েন্ট হলেও গোল পার্থক্যে তাদের পেছনে ফেলেছে সান্ডারল্যান্ডের সঙ্গে গোলশূন্য ড্র করা টটেনহ্যাম হটস্পার।

২২ ম্যাচে ৪৩ পয়েন্ট নিয়ে পাঁচ নম্বরে ম্যানচেস্টার সিটি, ৪১ পয়েন্ট নিয়ে তাদের পরেই আছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড।



পাঠকের মতামত...

Top