Bhorer Kagoj logo
ঢাকা, সোমবার, ২৪শে জুলাই, ২০১৭ ইং | ৯ই শ্রাবণ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ | ২৯শে শাওয়াল, ১৪৩৮ হিজরী

‘অনৈতিক সরকার থাকলে অনৈতিকতা ছড়াবেই’


প্রকাশঃ ০৩-০২-২০১৭, ৪:২৫ অপরাহ্ণ | সম্পাদনাঃ ০৩-০২-২০১৭, ৪:২৫ অপরাহ্ণ

rizve-Bg20170203120414কাগজ অনলাইন প্রতিবেদক: রাষ্ট্রের দায়িত্বে অনৈতিক সরকার থাকলে দেশব্যাপী অনৈতিকতা ছড়াবেই বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্মমহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

শুক্রবার (০৩ ফেব্রুয়ারি) সকালে ঢাকার নয়াপল্টনে বিএনপির অফিসে এক সংবাদ সম্মলেন এ মন্তব্য করেন তিনি।

রিজভী বলেন, ‘ওয়াসার পানিতে যদি কেরোসিন ঢেলে দেওয়া হয়, তবে সেটা সবার ঘরে-ঘরে ছড়িয়ে যাবে। তেমনি একটি দেশের দায়িত্বে যদি অনৈতিক সরকার থাকে, তাহলে দেশব্যাপী অনৈতিকতা বিস্তার লাভ করবেই।’

চাদঁপুরে স্কুল ছাত্রের শরীরের ওপর দিয়ে হেঁটে যাওয়ার ঘটনার তীব্র নিন্দাও জানিয়েছেন রুহুল কবির রিজভী।

কতখানি কুরুচি সম্পন্ন হলে এমন করে কোমলমতি শিশুর শরীরের ওপর দিয়ে হাঁটা যায় বলেও মন্তব্য করেন বিএনপির এ সিনিয়র নেতা।

রিজভী বলেন, ‘দেশের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে বিদেশি কূটনীতিকের পরিদর্শন কিসের আলামত? সামগ্রিকভাবে মনে হচ্ছে আমাদের সব সরকারি প্রতিষ্ঠানকে পার্শ্ববর্তী দেশের এক্সটেনশনে পরিণত করার উদ্যোগ চলছে।’

বাংলাদেশকে ভারতের হাতে উজাড় করে দিচ্ছে সরকার উল্লেখ তিনি বলেন, ‘ভারতের সঙ্গে বাণিজ্য ঘাটতি কমাতে বাংলাদেশ থেকে পাট ও পাটজাত দ্রব্যসহ ছয়টি পণ্য রফতানি হতো। এক তরফাভাবে বাংলাদেশের পাট ও পাটপণ্যের ওপর ভারতের অ্যান্টি ডাম্পিং শুল্ক আরোপে ভারতে পাট রফতানি বন্ধ হয়ে পড়ছে। গত ৫ জানুয়ারি ভারত সরকার এ বিষয়ে প্রজ্ঞাপন জারির পর থেকে পাট ও পাটপণ্য  রফতানি আটকে গেছে। এ নিয়ে চরম বিপাকে পড়েছেন রফতানিকারকরা। এ ব্য‍াপারে কোনো পদক্ষেপ নেই সরকারের।’

ভারতকে হাজার-হাজার কোটি টাকা ব্যয়ে সড়ক মহাসড়ক তৈরি করে দিয়ে প্রতিবেশী দেশের পণ্য পরিবহনে সুবিধা করে দিচ্ছে বলেও উল্লেখ করেন রিজভী।

বিএনপির এ সিনিয়র যুগ্মমহাসচিব বলেন, ‘মংলা ঘসিয়াখালি নৌরুট দিয়ে যাতে ভারত সহজে পণ্য যাতায়াত করতে পারে, সেজন্য গত সপ্তাহেও ৭০৬ কোটি টাকা বরাদ্ধ করেছে ভোটারবিহীন এ সরকার। কোথাও ট্রানজিটের নামে করিডোর দিয়ে, কোথাও মালামাল পরিবহনের নামে নৌ ও সমুদ্র বন্দর ব্যবহারের সুযোগ দিয়ে, এক কথায় বাংলাদেশকে ভারতে ১ নাম্বার মার্কেটে পরিণত করতে সব ধরনের প্রস্তুতি নিয়েছে সরকার।’

সরকারের নানা কর্মকাণ্ডের সমালোচনা করে রুহুল কবির রিজভী বলেন, ‘বিএনপির নেতাকর্মীদের নামে মামলা দিয়ে তাদের নাজেহালের চেষ্টা করে যাচ্ছে সরকার। যারা এ নাজেহালের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট থাকছেন তাদের উপলদ্ধি করা উচিত, এ সরকারই শেষ সরকার নয়।’

এ সময় উপস্থিত ছিলেন- বিএনপির যুগ্মমহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, সাংগঠনিক সম্পাদক রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু, আইনবিষয়ক সম্পাদক সানাউল্লাহ মিয়া, সহদফতর সম্পাদক মুনির হোসেন প্রমুখ।



পাঠকের মতামত...

Top