মিরপুরে স্কুলে শিশু ধর্ষণ : শিক্ষকের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

বুধবার, ২৭ মে ২০১৫

আদালত প্রতিবেদক : রাজধানীর মিরপুরে হলি ক্রিসেন্ট স্কুল এন্ড কলেজের প্লে গ্রুপের ছাত্রী পাঁচ বছর বয়সী শিশু ধর্ষণ মামলায় আরবি শিক্ষকের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন ট্রাইব্যুনাল। আসামিকে অতিরিক্ত দুই লাখ টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো এক বছরের কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে।

দণ্ডপ্রাপ্ত মিনহাজ উদ্দিন (২৫) ওই স্কুলের খণ্ডকালীন শিক্ষক ছিলেন। তিনি কুড়িগ্রাম জেলার উলিপুর থানার তবকপুর গ্রামের মৃত এনায়েত হোসেনের ছেলে। আসামি স্কুলে আলিফ স্যার নামে পরিচিত ছিলেন। গতকাল মঙ্গলবার ঢাকার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-৫-এর বিচারক তানজিনা ইসমাইল জনাকীর্ণ আদালতে এ রায় ঘোষণা করেন। রায় ঘোষণার আগে আসামিকে কারাগার থেকে আদালতে হাজির করা হয়। রায়ের আদেশে বলা হয়, আসামির

বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় এ দণ্ড দেয়া হলো। জরিমানার দুই লাখ টাকার মধ্যে এক লাখ টাকা শিশুটির পরিবারকে দিতে হবে।

মামলার বিচার চলাকালে চার্জশিটভুক্ত ১০ জন সাক্ষীর মধ্যে ৯ জনের সাক্ষ্য নেয়া হয়। গত বছরের ২৯ অক্টোবর আসামির বিরুদ্ধে ধর্ষণের অপরাধে অভিযোগ গঠন করা হয়। একই বছরের ২৬ জুন মিরপুর থানার উপপরিদর্শক মতিউর রহমান তদন্ত শেষে অভিযোগপত্র দাখিল করেন।

ঘটনার বিবরণে জানা যায়, গত বছরের ১১ মার্চ মিরপুরের পশ্চিম শেওড়াপাড়ায় সকাল ১০টায় হলি ক্রিসেন্ট স্কুলে খণ্ডকালীন আরবি শিক্ষক মো. মিনহাজ উদ্দিন ওরফে আলিফ স্যার প্লে শ্রেণির পাঁচ বছর বয়সী ছাত্রীটিকে চকলেট খাওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে স্কুলের শৌচাগারে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করেন। রক্তক্ষরণরত অবস্থায় ছাত্রীটি বাসায় গিয়ে অসুস্থ হয়ে পড়ে। তার মাকে ঘটনার বিষয়ে সব খুলে বলে। পরে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এ ঘটনায় ভিকটিমের বাবা মো. জসিম উদ্দিন মিরপুর থানায় ধর্ষণের অভিযোগে মামলাটি করেন। আসামিকে ওইদিনই গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

রাষ্ট্রপক্ষে মামলাটি পরিচালনা করেন সংশ্লিষ্ট ট্রাইব্যুনালের বিশেষ পাবলিক প্রসিকিউটর আলী আজগর স্বপন। অন্যদিকে ধর্ষিত শিশুটির (ভিকটিম) পক্ষে রাষ্ট্রকে সহায়তা করেন বাংলাদেশ জাতীয় মহিলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি এডভোকেট সালমা আলী, এডভোকেট ফাহমিদা আক্তার রিংকী।

প্রথম পাতা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj