খুলনা সরকারি মহিলা কলেজের ‘হীরক জয়ন্তী’ পালিত

শুক্রবার, ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৬

খুলনা অফিস : শিক্ষার মূল লক্ষ্য হচ্ছে জ্ঞান ও দক্ষতা অর্জন। যে শিক্ষায় এটা নেই তা কোনো কাজে আসে না। লক্ষ্য অর্জনে যার যার অবস্থানে থেকে কাজ করতে হবে। শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ গত বুধবার দুপুরে খুলনা সরকারি মহিলা কলেজের ৭৫ বছর পূর্তি ‘হীরক জয়ন্তী’ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ কথা বলেন। শিক্ষামন্ত্রী বর্তমান সরকারের বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকাণ্ডের বর্ণনা দিয়ে বলেন, গতানুগতিক শিক্ষার পরিবর্তে কারিগরি শিক্ষার ওপর সরকার গুরুত্ব দিচ্ছে। ফলে বর্তমানে ১২% শিক্ষার্থী কারিগরি শিক্ষায় পড়াশুনা করছে যা আগে ছিল ১%-এ। পরিকল্পনা নিয়ে নতুন শিক্ষা ব্যবস্থা চালু করা হয়েছে। ইতোমধ্যে শিক্ষানীতিমালা প্রণয়ন করা হয়েছে। বৈষম্য দূর করে বছরের শুরুতে ধনী-গরিব সব ছেলেমেয়ের হাতে বই পৌঁছে দেয়া হচ্ছে।

তিনি বলেন, শিক্ষার্থীদের নৈতিক মূল্যবোধ এবং মানুষের সঙ্গে ভালো ব্যবহার করার গুণ অর্জন করতে হবে। আমাদের চিন্তাধারা, সংস্কৃতি ও দৃষ্টিভঙ্গির পরিবর্তন আনতে হবে। ছেলেমেয়েদের সমান সুযোগ নিশ্চিত করা গেলে তারা সমানতালে কাজ করতে সক্ষম, এটা এখন প্রমাণিত। মন্ত্রী বলেন, স্বাধীনতার মূল উদ্দেশ্য ছিল সমৃদ্ধ ও উন্নত দেশ গড়া। বর্তমানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশের ও জনগণের ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে। স্বাস্থ্য-শিক্ষা, যোগাযোগসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে অভূতপূর্ব উন্নয়ন হয়েছে। মানুষের গড় আয়ু বেড়ে ৭০ বছর হয়েছে। কৃষিক্ষেত্রে প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে ৫ বছরের মধ্যে দেশ খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জন করেছে। আমাদের লক্ষ্য হচ্ছে অর্থনৈতিকভাবে বেশিদিন দরিদ্র থাকব না। আর্থিকভাবে এখনো দরিদ্র থাকলেও আমাদের নতুন প্রজন্ম বিশ্বের যে কোনো প্রতিযোগিতায় টিকে থাকতে সক্ষম।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী নারায়ণ চন্দ্র চন্দ, তালুকদার আবদুল খালেক এমপি, মন্নুজান সুফিয়ান এমপি এবং খুলনা জেলা পরিষদ প্রশাসক শেখ হারুনুর রশিদ। সভাপতিত্ব করেন কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর মো. আবদুল আলীম। স্বাগত বক্তৃতা করেন উপাধ্যক্ষ ও অনুষ্ঠান বাস্তবায়ন কমিটির আহ্বায়ক প্রফেসর মো. মঞ্জুরুল ইসলাম।

সারাদেশ'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj