কান নিয়ে কানাকানি

শনিবার, ২০ মে ২০১৭

বিভাস হালদার : বিশ্ব চলচ্চিত্রের মর্যাদাপূর্ণ আসর ‘কান চলচ্চিত্র উৎসব’-এর পর্দা উঠছে গত বুধবার। বর্ণিল আয়োজনে গত ১৭ মে থেকে শুরু হয়ে আগামী ২৮ মে পর্যন্ত ফ্রান্সের সাগরপাড়ের শহর কানে অনুষ্ঠিত হচ্ছে এ উৎসব। এবার অনুষ্ঠিত হচ্ছে উৎসবের ৭০তম আসর। পৃথিবীর বিখ্যাত সব চলচ্চিত্র তারকাদের পদচারণায় মুখরিত হচ্ছে এ উৎসব।

গত বুধবার (১৭ মে) সন্ধ্যা সোয়া ৭টায় (বাংলাদেশ সময় রাত সোয়া ১১টা) শুরু হয়েছে আলোচিত কান উৎসবের আনুষ্ঠানিকতা। আসরের শুরুটা হয় নাচ-গান দিয়ে। নিয়ম মেনে মঞ্চে আসেন উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের ‘মিস্ট্রেস অব সিরিমনিস’ মনিকা বেলুচ্চি, রাখেন বক্তব্যও। এর মধ্যে অন্য আনুষ্ঠানিকতা এগিয়ে চলে। কিন্তু দুজনকে চুম্বন করে নজর কেড়ে নেন মনিকা। ইতালিয়ান অভিনেত্রী মনিকার চুম্বনপ্রাপ্তদের মধ্যে অন্যতম হলেন ৩৮ বছর বয়সী ফ্রান্সের নির্মাতা ও কমেডিয়ান এলেক্স লুটজ। আগে কান চলচ্চিত্র উৎসবের লাল গালিচা মানেই ছিল হলিউড আর ইউরোপীয় তারকাদের আধিপত্য। কয়েক বছর হলো বদলেছে দৃশ্যপট। অন্য দেশের তারকাদের সঙ্গে তাল মিলিয়ে লাল গালিচায় হাঁটছেন ভারত, চীনসহ বিভিন্ন দেশের তারকারা। এবারো ব্যক্তিক্রম হয়নি। গত বুধবার রাতে শুরু হওয়া ৭০তম কান চলচ্চিত্র উৎসবে ছিলেন বেশ কয়েকজন এশীয় তারকা। এর মধ্যে ছিলেন ভারতীয় অভিনেত্রী দীপিকা পাড়ুকোন, মল্লিকা শেরাওয়াত, চীনা ফ্যান বিংবিং, ওয়াং লুডান, মালয়েশিয়ার মিশেল ইয়ো, থাইল্যান্ডের শাম্পু প্রমুখ। এদের কেউ জুরিবোর্ডের সদস্য, কারো ছবি আছে মূল প্রতিযোগিতায়, কেউ বা এসেছেন কোনো পণ্যের শুভেচ্ছাদূত হয়ে। ইতোমধ্যে ঐশ্বরিয়ারাই বচ্চন মেয়েকে নিয়ে পৌঁছে গেছেন কোন উৎসবে যোগ দিতে। এসব সুন্দরীদের পাশাপাশি কান চলচ্চিত্র উৎসবে বাংলাদেশ থেকে যোগ দিয়েছেন চলচ্চিত্র পরিচালক নাসিরউদ্দিন ইউসুফ বাচ্চু, স্বপন আহমেদ, সামিয়া জামানসহ আরো অনেকে।

উৎসবের প্রথম দিনেই লরিয়াল প্যারিসের শুভেচ্ছাদূত হয়ে কানের লালগালিচায় হেঁটেছেন বলিউড অভিনেত্রী দীপিকা পাড়ুকোন। এ বছর ভারতীয় তারকাদের মধ্যে দীপিকাই প্রথম হাঁটলেন কানের লালগালিচায়। মারচেসা ব্র্যান্ডের হালকা বেগুনি রঙা স্বচ্ছ গাউন, ডি গ্রিসোজোনোর গহনা ও জিমি চুর ডিজাইন করা জুতা পরে হাজির হয়েছিলেন ৩১ বছর বয়সী এই অভিনেত্রী। উৎসবের দ্বিতীয় দিন বৃহস্পতিবার সকালে হলুদ গাউন পরেছিলেন দীপিকা। এদিন সবুজ রঙা গাউন পরে লালগালিচায় হাঁটেন তিনি। লরিয়াল প্যারিসের দূতিয়ালি করতে গত ১৬ মে কানে এসে পৌঁছান তিনি। ওইদিন তাকে দেখা গেছে ক্লো ব্র্যান্ডের হলুদ টপস ও নীল জিন্সে। উদ্বোধনী দিনে লালগালিচায় হাজির হয়েছিলেন মল্লিকা শেরাওয়াত। ফরাসি ছবি ‘ইমানুয়েলস গোস্ট’ দেখতে এসেছিলেন বলিউডের এই অভিনেত্রী।

ডিজাইনার জিওর্জেস হোবেইকার সাজানো গাউন ও মেসিকা জোয়াইয়েরির বানানো হার পরে কানের লালগালিচায় পা মাড়িয়েছেন মল্লিকা। তবে চমকপ্রদ ব্যাপার হলো- গত বছরও একই ডিজাইনারের পোশাক বেছে নিয়েছিলেন ‘মার্ডার’খ্যাত এই তারকা। কানের লালগালিচায় হাঁটা প্রসঙ্গে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারে মল্লিকা জানান, ‘নিজেকে রানীর মতো লাগছে!’ এছাড়া ডিজাইনারদের ধন্যবাদ জানান তিনি। ১২ বছর আগে ‘দ্য মিথ’ ছবির প্রচারণা করতে কান শহরে এসেছিলেন মল্লিকা। সেসময় তার সঙ্গে ছিলেন মার্শাল আর্ট তারকা জ্যাকি চ্যান। এরপর থেকে নিয়মিত সাগর পাড়ের শহরটিতে আসছেন তিনি।

এদিন হাজির হয়েছিলেন হলিউডের নামি-দামি তারকা, নির্মাতা ও প্রযোজকরা। আর সেখানে লালগালিচায় হাঁটতে গিয়ে অদ্ভুত পরিস্থিতির মধ্যে পড়তে হয়েছে মার্কিন মডেল বেলা হাদিদকে। অ্যালেক্সান্দ্রা ভাউথিয়ারের ডিজাইন করা হালকা গোলাপি রঙা সুইটহার্ট নেক গাউন পড়ে লালগালিচায় হাজির হয়েছিলেন বেলা। কিন্তু পোশাকটির কাটা এতটাই বেশি ছিল যার ফলে আলোকচিত্রীদের সামনে বিপাকে পড়তে হয় ২০ বছর বয়সী এই মডেলকে। কেননা ক্যামেরার দিকে তাকিয়ে পোজ দিতে গিয়ে বেরিয়ে পড়ে তার অন্তর্বাস। তবে এ ঘটনায় মোটেও অস্বস্তিতে পড়েননি বেলা। বরং পেশাদার মডেলদের মতো একইরকম সপ্রতিভ ভাবে হেঁটে গিয়েছেন লালগালিচায়। এসময় বেলার সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন তার বাবাও। গত বছর ৬৯তম কান চলচ্চিত্র উৎসবে একই ধরনের লাল পোশাকে দেখা গিয়েছিল তাকে। তবে চমকপ্রদ ব্যাপার হলো- সে বছরও একই ঘটনার সম্মুখীন হয়েছিলেন তিনি।

এবার প্রতিযোগিতা বিভাগে লড়ছে মোট ১৯টি ছবি। আয়োজনে প্রতিযোগিতা বিভাগের বিচারকদের প্রেসিডেন্ট হিসেবে আছেন পেদ্রো আলমোদোভার। এছাড়াও জুরিবোর্ডে আছেন পার্ক চ্যান উক, মারান আডে, ফ্যান বিংবিং, গ্যাব্রিয়েল ইয়াহেদ, উইল স্মিথ, আনিয়েস ঝাউয়ি, জেসিকা চেস্টেইন ও পাওলো সরেন্তিনো। প্রতিযোগিতা বিভাগের বাইরে দেখানো হবে চারটি ছবি। এ বিচারকদের বিচারেই চূড়ান্ত হবে উৎসবের সর্বোচ্চ পুরস্কার স্বর্ণপাম জয়ী ছবি। বুধবার দুপুর আড়াইটায় (বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা সাড়ে ৬টা) এই বিচারকরা হাজির হন সংবাদ সম্মেলনে।

অন্যদিকে আনসার্টেন রিগার্ড বিভাগের এবার নির্বাচিত হয়েছে ১৭টি ছবি। এতে জুরি প্যানেলের সভাপতি হলিউড অভিনেত্রী উমা থারম্যান। শিার্থী নির্মাতাদের বিভাগ সিনেফন্ডেশন এবং স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র বিভাগের মূল বিচারক রোমানিয়ান নির্মাতা ক্রিস্টিয়ান মুঙ্গিউ।

ক্যামেরা দ’র বিভাগে বিচারকদের সভাপতি ফরাসি অভিনেত্রী সনদ্রিন কিবারলিয়েন। তাদের প্রত্যেকের নেতৃত্বে পৃথকভাবে বিচারকদের দায়িত্ব পালন করবেন বেশ কয়েকজন খ্যাতিমান।

বিনোদন হাইলাইটস'র আরও সংবাদ