বাংলা নাট্যমঞ্চে নজরুল সাহিত্য

শনিবার, ২০ মে ২০১৭

মেলা প্রতিবেদক : ঢাকার নাট্যমঞ্চেও বেশ কিছু সাহিত্যনির্ভর নাটক মঞ্চায়িত হয়েছে। তবে সাহিত্যনির্ভর নাট্যচর্চায় নজরুলের সাহিত্য যেন কিছুটা অবহেলিত। কাজী নজরুল ইসলামের ‘রাক্ষুসী’ সারা দেশে সর্বাধিক মঞ্চায়িত নাটক হলেও শিল্পমান বিচারে নজরুলের উল্লেখযোগ্য নাটকের সংখ্যা খুবই কম। দেশের বিভিন্ন নাট্যসংগঠন নজরুলের কবিতা-গল্প অবলম্বনে নাটক মঞ্চে এনেছে। এর মধ্যে প্রাঙ্গণেমোর প্রযোজিত ‘দ্রোহ প্রেম নারী’ ও সা¤প্রতিক সময়ে মহাকাল নাট্য স¤প্রদায়ের প্রযোজনায় মঞ্চে আসা ‘নীলাখ্যান’ নাটকটি প্রশংসা কুড়িয়েছে। কাজী নজরুল ইসলামের গীতিনাট্য ‘আলেয়া’ অবলম্বনে ২০১০ সালের ১৭ জুন প্রাঙ্গণেমোর মঞ্চে আনে নাটক ‘দ্রোহ প্রেম নারী’। রাজা মীনকেতু আর অন্য দেশের রানী জয়ন্তীকে নিয়েই গড়ে উঠেছে ‘দ্রোহ প্রেম নারী’ কাহিনী। মীনকেতু ফুল ও হৃদয় দলন করতে ভালোবাসে। জয়ন্তী চায় মীনকেতুর রাজ্য ও হৃদয় জয় করতে। এই যুদ্ধ, এই ভালোবাসা নিয়েই গড়ে ওঠে কাহিনী। তিনটি পুরুষ ও তিনটি নারীর হৃদয়ের জটিল ধারায় চলাচলের বয়ান এই নাটক। নাটকটি নির্দেশনা দিয়েছেন রামিজ রাজু। এটিই এই নির্দেশকের প্রথম নির্দেশিত নাটক। নাটকটিতে অভিনয় করছেন- অনন্ত হিরা, নূনা আফরোজ, সরোয়ার সৈকত, শুভেচ্ছা, অনিন্দ্র কিশোর, ইষ্টের সুমী, নিজাম লিটন, রিগ্যান, মনির, চৈতী, সীমান্ত, বিপ্লব, লিটু, সুজন, আশা, উষা, সুজয়, সেলিম, মিথুন। জেনেসিস থিয়েটার মঞ্চে এনেছে জাতীয় কবি কাজী নজরুলের জীবনীভিত্তিক নাটক ‘দামাল ছেলে নজরুল’। ২০১১ সালে এটি মঞ্চে আসে। এটি লিখেছেন মাহমুদ উল্যাহ।

নির্দেশনা দিয়েছেন নূর হোসেন। নাটকে দেখা যায়, ছেলেবেলায় বাবাকে হারিয়ে ছোট বোন আর মাকে নিয়ে কষ্টের জীবন শুরু নজরুলের। লেটোর দলে গান, রুটির দোকানে চাকরি, রানীগঞ্জে শিয়ারশোল স্কুলে ভর্তি, ইংরেজদের বিরুদ্ধে হাবিলদার নজরুল। বাঙালি পল্টন ভেঙে দেয়ার পর অন্যায়ের বিরুদ্ধে ‘কলম’ নামের অস্ত্র হাতে নিয়ে সাপ্তাহিক বিজলী পত্রিকায় কালজয়ী ‘বিদ্রোহী’ কবিতা প্রকাশ- এসব নিয়ে নাটকটির কাহিনী এগিয়ে যায়। বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন নিথর মাহবুব, ইমন, শাওন, ইকবাল, তাহের, রনি, ফারজানা, সচি, সাকিব, সাবা, কাঁকন প্রমুখ। ঢাকার মঞ্চে সা¤প্রতিক সময়ে আলোচিত হয়েছে নাটক ‘নীলাখ্যান’। জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের ‘সাপুড়ে’ গল্প অবলম্বনে নাটকটি লিখেছেন আনন জামান। মহাকাল নাট্য স¤প্রদায়ের প্রযোজনায় নাটকটি নির্দেশনা দিয়েছেন ইউসুফ হাসান অর্ক। প্রথম প্রদর্শনীতেই নাটকটি নাট্যজনদের কাছে প্রশংসা কুড়ায়।

‘নীলাখ্যান’-এ অভিনয় করছেন পলি বিশ্বাস, মনামী ইসলাম কনক, লিঠু মণ্ডল, জেরিন তাসনীম এশা, কোনাল আলী, চৈতী সাথী, তনু ঘোষ, আমিনুল আশরাফ, আসাদুজ্জামান রাফিন, মোহাম্মদ আহাদ, শিবলী সরকার, শাহরিয়ার হোসেন পলিন, ইয়াছির আরাফাত, তৌহিদুল রহমান শিশির, ইকবাল চৌধুরী, জাহিদুল কামাল চৌধুরী দিপু, মো. শাহনেওয়াজ।

নাটকটির নির্দেশক ইউসুফ হাসান অর্ক বলেন, নাটকের কাহিনীটির প্রেক্ষাপট ভেদে বহর হলেও কবি নজরুলের অন্তভ্রোতে এমন একটি সর্বজনীন বীজ ভাসিয়ে দিয়েছেন যা স্পষ্টতই গোটা মানবজাতির সর্বকালকে ছুঁয়ে যায়। ‘নীলাখ্যান’ প্রযোজনাতেও সেই প্রয়াস রয়েছে। ঢাকার মঞ্চে সাহিত্যনির্ভর নাটকে নজরুল নিয়ে কিছু কাজ হলেও সেগুলো মানের বিচারে অপ্রতুল। নজরুলের লিচু চোর কবিতা নিয়ে একাধিক শিশু-কিশোর নাট্যসংগঠন মঞ্চনাটক করেছে। তবে নজরুলের অনেক কবিতা, গল্প রয়েছে যেগুলো মঞ্চনাটক হিসেবে সম্ভাবনা তৈরি করে। কিন্তু নাট্যমঞ্চে নজরুল কিছুটা কমই চর্চিত হয়েছে।

মেলা'র আরও সংবাদ