Warning: include(../dfpbk1.php): failed to open stream: No such file or directory in /home/bhorerk/public_html/print-edition/wp-content/themes/bkprint/single.php on line 4

Warning: include(): Failed opening '../dfpbk1.php' for inclusion (include_path='.:/usr/lib/php:/usr/local/lib/php') in /home/bhorerk/public_html/print-edition/wp-content/themes/bkprint/single.php on line 4
টুকি-টাকি

টুকি-টাকি

শনিবার, ২০ মে ২০১৭

সিরিয়ার যুদ্ধকবলিত শিশুদের জন্য ঘর দেবে তুরস্ক

কাগজ ডেস্ক : সিরিয়ার যুদ্ধকবলিত শিশুদের জন্য তুরস্ক এক বিশাল জায়গা দিয়েছে। যেখানে যুদ্ধে পরিবার হারানো এসব শিশুর জন্য ঘর ও শিক্ষার ব্যবস্থা করা হবে। শুক্রবার যুক্তরাজ্যের সংবাদ মাধ্যম বিবিসি এ খবর প্রকাশ করেছে।

খবরে বলা হয়, রেহানিল নামে সীমান্তবর্তী ওই এলাকায় প্রায় এক হাজার শিশুর জন্য বাসস্থান তৈরি করা হবে। মোট ৫৫টি বাড়ির মতো তৈরি করা হবে; সেখানে থাকবে চারটি স্কুল, একটি মসজিদ, খেলার মাঠ এবং খোলা জায়গা।

এই কেন্দ্রটি দুই বছরের কম সময় আগে তুরস্কের সরকার এবং দুটি সাহায্য সংস্থার অর্থে গড়ে তোলা হয়েছে। ইউনিসেফ বলছে, সিরিয়াতে ছয় বছরের যুদ্ধে ছয় মিলিয়ন শিশু ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

তুরস্কের সরকার সমর্থিত আইএইচএইচ এবং কাতারভিত্তিক আরএএফ এই ‘অরফ্যান সিটি’ গড়ে তোলে। তারা বলছে, সিরিয়ার শিশু যারা সবকিছু হারিয়ে রাস্তায় রয়েছে, তাদের মানসিকভাবে সাহায্য করাই তাদের উদ্দেশ্য। এ ছাড়া আরো ৫ হাজার শিশু যারা ওই কমপ্লেক্সে থাকবে না তাদেরও সাহায্য করবে তুরস্ক।

নিউইয়র্কে পথচারীদের ওপর গাড়ি, নিহত ১

কাগজ ডেস্ক : নিউইয়র্ক শহরের ব্যস্ততম এলাকা টাইমস স্কয়ারে একটি দ্রুত গতির গাড়ি পথচারীদের ওপর উঠিয়ে দেয়ায় একজন নিহত হয়েছেন। স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার দুপুরের এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরো অন্তত ১২ জন। চালককে আটক করা হয়েছে। এটি কোনো সন্ত্রাসী কাজ নয় বলে ধারণা করছে পুলিশ। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর এক কর্মকর্তার বরাত দিয়ে নিউইয়র্ক টাইমস বলছে, গাড়িচালক হয় মাতাল ছিলেন অথবা মাদক নিয়েছিলেন। এর আগেও মাতাল অবস্থায় গাড়ি চালানোর দায়ে তিনি গ্রেপ্তার হয়েছিলেন। ম্যানহাটনের প্রাণকেন্দ্র টাইমস স্কয়ার দিয়ে প্রতিদিন লাখ লাখ মানুষের চলাচল, যাদের মধ্যে একটি বড় সংখ্যা বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে যাওয়া পর্যটকরা।

প্রত্যক্ষদর্শীরা রয়টার্সকে জানান, গাড়িটি নিয়ম ভেঙে চলার এক পর্যায়ে ফুটপাতে উঠে পথচারীদের ধাক্কা দেয়। সবাই দৌড়াচ্ছিল, নিজের জীবন বাঁচাতে চাইছিল, স্থানীয় সিবিএস টেলিভিশনকে বলেন একজন প্রত্যক্ষদর্শী।

কুলভূষণের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর না করার নির্দেশ দিলেন আন্তর্জাতিক আদালত

কাগজ ডেস্ক : গুপ্তচর সন্দেহে বেলুচিস্তানে আটক ভারতের সাবেক নৌসেনা কর্মকর্তা কুলভূষণ যাদবের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর না করার জন্য পাকিস্তানকে নির্দেশ দিয়েছেন জাতিসংঘের শীর্ষ আদালত।

আন্তর্জাতিক আদালতে শুনানি শেষ না হওয়া পর্যন্ত কুলভূষণের বিরুদ্ধে পাকিস্তান কোনো পদক্ষেপ নিতে পারবে না বলে জানালেন আদালতের প্রেসিডেন্ট রনি আব্রাহাম। কুলভূষণ যাদবকে কনস্যুলারের সঙ্গে দেখা করতে দেয়ার অধিকার থেকে বঞ্চিত করে পাকিস্তান আন্তর্জাতিক আইন ভঙ্গ করেছে। আন্তর্জাতিক ন্যায়বিচার আদালতে (আইসিজে) এ যুক্তিই দিয়েছে ভারত। কিন্তু পাকিস্তান যুক্তি দেখিয়ে বলেছিল, কুলভূষণ যাদবের মামলা আন্তর্জাতিক আদালতের এক্তিয়ারভুক্ত নয়। ফলে আদালত যেন মামলায় হস্তক্ষেপ না করে। কিন্তু পাকিস্তানের এ যুক্তি মানেনি জাতিসংঘের শীর্ষ আদালত। রায় ঘোষণা করে আদালত জানাল, ভিয়েনা কনভেনশন অনুযায়ী এ মামলায় হস্তক্ষেপ করার অধিকার আন্তর্জাতিক আদালতের রয়েছে। ওই কনভেনশনের শর্তানুযায়ী, কুলভূষণের সঙ্গে দেখা করার অধিকারও আছে ভারতীয় কনস্যুলারের। ফলে আন্তর্জাতিক আদালতের নির্দেশ, মামলার শুনানি শেষ হওয়া এবং চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত না হওয়া পর্যন্ত কুলভূষণের বিরুদ্ধে যেন কোনো পদক্ষেপ পাকিস্তান না নেয়। এ মামলায় আদালত দুপক্ষ থেকেই যুক্তি চাইবে বলেও জানিয়েছে। গত বছর মার্চে পাকিস্তানের বেলুচিস্তানে গ্রেপ্তার হয়েছিলেন যাবদ। গত মাসে তিনি দোষী সাব্যস্ত হন। তিনি গুপ্তচর নন বলে দাবি করেছে ভারত। ওদিকে, পাকিস্তানও তাকে অপহরণ করার অভিযোগ অস্বীকার করেছে।

বেলুচিস্তানে বিচ্ছিন্নতাবাদী বিদ্রোহে ভারতের মদদ ছিল বলে অভিযোগ পাকিস্তানের। ওদিকে, যাদব ইরানে থাকার সময় পাকিস্তান তাকে অপহরণ করেছিলে এবং মিথ্যা অভিযোগে তাকে ফঁসানো হয়েছে বলে দাবি ভারতের।

ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপন করছে না সুদান

কাগজ ডেস্ক : সুদানি তথ্যমন্ত্রী ও সরকারের মুখপাত্র আহমেদ ওসমান জানিয়েছেন, তারা ইসরায়েলের সঙ্গে রাষ্ট্রীয় সম্পর্ক স্থাপন করতে যাচ্ছেন না। আরবি সংবাদ মাধ্যম কুদস প্রেসের বরাত দিয়ে মিডলইস্ট মনিটর এ খবর জানিয়েছে। সুদানের ওপর ২০ বছর ধরে মার্কিন আর্থিক নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। বেশ কয়েকটি আরব ও আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমে বলা হয়, ওই মার্কিন নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়ার বিনিময়ে সুদানকে ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপন করতে বলা হয়েছিল। তবে সংবাদ মাধ্যমের এ দাবি অস্বীকার করে সরকারি মুখপাত্র আহমেদ ওসমান বলেন, মার্কিন কর্তৃপক্ষ বা অন্য কেউ আমাদের সামনে কোনো শর্ত রাখেনি।

দূরের জানালা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj

Warning: fopen(../cache/print-edition/2017/05/20/27e48803f027162a85473772e00169a7.php): failed to open stream: No such file or directory in /home/bhorerk/public_html/print-edition/wp-content/themes/bkprint/single.php on line 218

Warning: fwrite() expects parameter 1 to be resource, boolean given in /home/bhorerk/public_html/print-edition/wp-content/themes/bkprint/single.php on line 219

Warning: fclose() expects parameter 1 to be resource, boolean given in /home/bhorerk/public_html/print-edition/wp-content/themes/bkprint/single.php on line 220