সেই ম্যানিং এই ম্যানিং

শনিবার, ২০ মে ২০১৭

কাগজ ডেস্ক : যুক্তরাষ্ট্রের গোপন নথিপত্র উইকিলিকসকে দেয়ার অভিযোগে সাত বছর জেলে কাটিয়ে মুক্তি পাওয়ার পর প্রথম ছবি প্রকাশ করেছেন সাবেক মার্কিন সেনা চেলসি ম্যানিং, যিনি কারাগারে যাওয়ার সময় পরিচিত ছিলেন ব্র্যাডলি ম্যানিং নামে।

২০১৩ সালের জুলাইয়ে যুক্তরাষ্ট্রের একটি সামরিক আদালত ম্যানিংকে দোষী সাব্যস্ত করে ৩৫ বছরের কারাদণ্ড দেয়। এর একদিনের মাথায় তিনি নিজেকে নারী বলে দাবি করেন এবং বাকি জীবন চেলসি ম্যানিং নাম নিয়ে কাটানোর ইচ্ছা প্রকাশ করেন।

কারাগারে হরমোন চিকিৎসা পাওয়ারও দাবি তুলেছিলেন ম্যানিং। পুরুষদের জন্য নির্ধারিত একটি সামরিক কারাগারে থাকা অবস্থায় তিনি আত্মহত্যার চেষ্টা করেছিলেন বলেও খবর আসে আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমগুলোতে। প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা গত জানুয়ারিতে বিদায় নেয়ার আগে ম্যানিংয়ের সাজার মেয়াদ কমিয়ে সাত বছর করেন। এর ধারাবাহিকতায় ১৭ মে কারাগার থেকে মুক্তি পান যুক্তরাষ্ট্র সেনাবাহিনীর এক সময়ের ‘প্রাইভেট ফার্স্ট ক্লাস’ ম্যানিং। পুরো সাজা খাটতে হলে ২০৪৫ সালের আগে মুক্ত জীবনে ফেরার সুযোগ হতো না ২৯ বছর বয়সী এই তরুণের। মুক্তির পর সোশাল মিডিয়ায় চেলসি ম্যানিংয়ের কয়েকটি পোস্ট এলেও তার মুখমণ্ডল দেখা গেল এই প্রথম। টুইটার আর ইনস্টাগ্রামে আসা ওই ছবির লাল লিপস্টিকে ঠোঁট রাঙানো ম্যানিং বিশ্বকে বলেছেন ‘হ্যালো’।

দূরের জানালা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj