মধ্যপ্রাচ্য ও ইউরোপে ট্রাম্পের প্রথম বৈদেশিক সফর

শনিবার, ২০ মে ২০১৭

কাগজ ডেস্ক : ঘরে ক্রমেই বিশৃঙ্খলার ঘেরাটোপে জড়িয়ে পড়তে থাকা মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প মধ্যপ্রাচ্য ও ইউরোপের কয়েকটি দেশে প্রথম বৈদেশিক সফরে যাচ্ছেন। বাংলাদেশ সময় শনিবার ভোরে সফরের শুরুতেই সৌদি আরবে রওনা হচ্ছেন তিনি। এরপর আগামী সপ্তাহে তিনি ইসরায়েল, বেলজিয়াম এবং ইতালিতে যাবেন। এ সফরের ফলে দেশে ট্রাম্পকে ঘিরে গজিয়ে ওঠা নানা বিতর্ক থেকে সবার নজর আপাতত তার বৈদেশিক নীতির ওপর গিয়ে পড়বে বলে মনে করছে হোয়াইট হাউজ।

কূটনৈতিক অভিজ্ঞতা বিহীন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের জন্য এ বৈদেশিক সফরকে এক গুরুত্বপূর্ণ পরীক্ষা হিসাবে দেখা হচ্ছে। চলমান রাজনৈতিক প্রেক্ষাপটে ট্রাম্প তার গুরুত্বপূর্ণ এ প্রথম বৈদেশিক সফর কোনো বিপর্যয় ছাড়া উতরে যেতে পারলে এটি তার সফলতা বলেই গণ্য হবে। দেশে একগাদা সমস্যার মুখে ট্রাম্প এ সফর করছেন। আমেরিকাকে সর্বাগ্রে রাখার বার্তা দিয়ে তিনি মিত্রদের উদ্বেগ দূর করার চেষ্টা চালানোর সময় একইসঙ্গে তার পায়ে পায়ে বিরাজ করবে ঘরের সব সমস্যাগুলোও। ট্রাম্পের এফবিআই পরিচালক জেমস কোমিকে বরখাস্ত করার পদক্ষেপ থেকে শুরু করে ফ্লিন-রাশিয়া সম্পর্ক নিয়ে কোমিকে তার তদন্ত বন্ধ করতে বলার কথা প্রকাশ হয়ে যাওয়া এবং এরপর ট্রাম্প-রাশিয়া যোগসাজশ তদন্তে সাবেক এফবিআই প্রধান রবার্ট মুলারের নিয়োগের মত নানা ঘটনায় ওয়াশিংটনের রাজনৈতিক পরিস্থিতি বিশৃঙ্খলার মধ্য দিয়ে যাচ্ছে। আর কোরো প্রেসিডেন্টই ট্রাম্পের মত এতো কেলেঙ্কারি মাথায় নিয়ে প্রথম বৈদেশিক সফরে যাননি। ফলে তার সফরে এ বিষয়গুলো ছায়া ফেলবে বলেই মনে করছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা। রিয়াদ এবং জেরুজালেমের নেতারা ট্রাম্পকে ঊষ্ণ অভ্যর্থনা জানাবেন বলেই আশা করা হচ্ছে। কিন্তু ইরানের পারমাণবিক চুক্তি সম্পর্কে ট্রাম্পের মত নিয়ে প্রশ্ন আছে, ন্যাটোর নিরাপত্তায় ট্রাম্পের প্রতিশ্রæতি নিয়েও আছে সংশয়, প্যারিস জলবায়ু চুক্তির ব্যাপারেও ট্রাম্প অনমনীয়। ব্রাসেলস এবং সিসিলিতে ইউরোপীয় নেতাদের সঙ্গে ট্রাম্পের বৈঠকে এ বিষয়গুলো নিয়ে পরিস্থিতি উত্তপ্ত হওয়ার আশঙ্কা আছে।

দূরের জানালা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj