লক্ষীপুরে অস্ত্র ও গুলিসহ গ্রেপ্তারকৃত আসামি রাসেল বন্দুকযুদ্ধে নিহত

শনিবার, ২০ মে ২০১৭

কাগজ প্রতিবেদক, লক্ষীপুর থেকে : লক্ষীপুরে বন্দুক-গুলি ও ইয়াবাসহ গ্রেপ্তারকৃত রাসেল ওরফে কালা রাসেল পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছে। পুলিশ জানিয়েছে, নিহত রাসেল পুলিশের তালিকাভুক্ত সন্ত্রাসী এবং তার বিরুদ্ধে হত্যাসহ বিভিন্ন অভিযোগে ২০টি মামলা রয়েছে। গত বৃহস্পতিবার রাত ২টার দিকে লক্ষীপুর সদর উপজেলার দত্তপাড়া ও নোয়াখালীর চাটখিলের সীমান্তবর্তী এলাকায় এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। নিহত রাসেল নোয়াখালীর চাটখিলের চয়ানী টকবা গ্রামের আবদুল করিমের ছেলে। তার মরদেহ লক্ষীপুর সদর হাসপাতাল মর্গে রয়েছে।

চন্দ্রগঞ্জ থানা পুলিশ জানায়, গ্রেপ্তারকৃত রাসেলের তথ্য অনুযায়ী রাতে অস্ত্র উদ্ধারে যায় পুলিশ। এ সময় তার সহযোগীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি চালায় । আত্মরক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা কয়েক রাউন্ড গুলি চালায়। একপর্যায়ে সহযোগীদের গুলিতে রাসেলের মৃত্যু হয়। এ সময় ঘটনাস্থল থেকে একটি পিস্তল, একটি এলজি ও দুই রাউন্ড কার্তুজ উদ্ধার করা হয়।

লক্ষীপুরের চন্দ্রগঞ্জ থানার ওসি মোক্তার হোসেন জানান, নিহত কালা রাসেল পুলিশের তালিকাভুক্ত সন্ত্রাসী। তার বিরুদ্ধে চাটখিল ও চন্দ্রগঞ্জ থানায় হত্যা, সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড ও ডাকাতিসহ বিভিন্ন অভিযোগে ২০টি মামলা রয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত বৃহস্পতিবার সকালে লক্ষীপুরের চন্দ্রগঞ্জ থানার উত্তর জয়পুর গ্রামের কবিরাজ বাড়ির একটি পরিত্যক্ত ঘর থেকে একটি একনলা বন্দুক, দুই রাউন্ড গুলি ও ১১ পিস ইয়াবাসহ রাসেল ও মো. বাবলু নামে দুজনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। বাবলু জয়পুর গ্রামের নুরুল আমিনের জেলে। সে থানা পুলিশ হেফাজতে রয়েছে।

শেষ পাতা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj