২ নেতার অভিমত : বিএনপি নির্বাচনের জন্য প্রস্তুত, তবে…

শনিবার, ২০ মে ২০১৭

কাগজ প্রতিবেদক : দীর্ঘদিন ক্ষমতার বাইরে থাকা দেশের অন্যতম বৃহৎ রাজনৈতিক দল বিএনপি জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নেয়ার জন্য প্রস্তুত রয়েছে। তবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অধীনে নয়। গতকাল শুক্রবার পৃথক দুটি অনুষ্ঠানে এমন মন্তব্য করেছেন দলটির স্থায়ী কমিটির দুজন সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ এবং গয়েশ্বর চন্দ্র রায়।

গতকাল জাতীয় প্রেসক্লাবে বাংলাদেশ গণতান্ত্রিক সাংস্কৃতিক জোট আয়োজিত ‘খালেদা জিয়া ঘোষিত ভিশন-২০৩০ : আগামী দিনের রাজনীতি আমাদের করণীয়’ শীর্ষক এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ বলেন, সুষ্ঠু নির্বাচন হলে আওয়ামী লীগের পরাজয় অবধারিত। এ জন্যই সুষ্ঠু নির্বাচন দিতে আওয়ামী লীগ ভয় পায়। তবে আগামীতে নির্বাচন সুষ্ঠু ও অবাধ হবে। সেই নির্বাচনে বিএনপি অংশগ্রহণ করবে। তিনি বলেন, বনানীর দ্য রেইনট্রি হোটেলে দুই ছাত্রী ধর্ষণে সরকারের কোনো না কোনো প্রভাবশালী মানুষের সমর্থন ও মদদ আছে। দেশে সামাজিক অপরাধ বৃদ্ধি পাচ্ছে, দিনে অন্তত ১২টি খুন হচ্ছে। বনানী দ্য রেইনট্রি হোটেলের মালিক কে সেটা সবাই জানেন। প্রত্যেকটি অপরাধের সঙ্গে তারাই জড়িত, যারা অপরাধ করে।

বাংলাদেশে সামাজিক অস্থিরতা বেড়েছে, কেন- নিজেই এমন প্রশ্ন তুলে সাবেক আইনমন্ত্রী বলেন, পুলিশকে বলা হয়েছে- বিরোধী দলকে পেটাও, তাদের কোনো জনসভা করতে দেবে না। আমরা আজ কোনো জনসভা করতে পারি না। কিন্তু তারা বলে, বিএনপি না কী নাই! আমি সরকারকে বলতে চাই, বাংলাদেশের যে কোনো জায়গায় এবং যে কোনো উপজেলা বিএনপিকে জনসভা করতে দেন, আর আপনারও করেন। দেখেন, কাদের জনসভায় বেশি মানুষ হয়? পুলিশকে আওয়ামী লীগ রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে এবং নিজেদের রক্ষা করার জন্য ব্যবহার করছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

‘বিচার বিভাগ স্বাধীন’- আওয়ামী লীগ নেতাদের এ বক্তব্যের কঠোর সমালোচনা করে তিনি বলেন, বিচারকরা স্বাধীন কিনা, এটা নিয়ে মানুষের মনে প্রশ্ন আছে। ক্ষমতায় এলে আমরা এই প্রশ্নগুলোকে বিতাড়িত করব। তবে প্রধান বিচারপতির প্রশংসা করতে হয়। তিনি চেষ্টা করছেন, বিচার বিভাগের স্বাধীনতা প্রতিষ্ঠিত করার জন্য। তার এই প্রচেষ্টা সফল হোক এটাই আমরা চাই।

এদিকে, গতকাল সকালে ঢাকা মহানগর উত্তর-দক্ষিণ স্বেচ্ছাসেবক দলের নতুন কমিটির নেতাকর্মীদের নিয়ে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের মাজারে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, বিএনপি এ দেশে বহুদলীয় গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করেছে। বিএনপি নির্বাচনে বিশ্বাস করে। বিএনপি মনে করে জনগণই ক্ষমতার অধিকারী। সে কারণে আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের জন্য বিএনপি সদা প্রস্তুত। জনগণের ভোট দেয়ার অধিকার নিশ্চিত হলে আমরা যেকোনো সময় নির্বাচনে অংশ নিতে প্রস্তুত। তবে শেখ হাসিনার অধীনে নয়। তিনি বলেন, ২০১৪ সালে শেখ হাসিনার পক্ষে যেটা করা সম্ভব হয়েছে সেটা ভবিষ্যতে আর সম্ভব হবে না।

প্রথম পাতা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj