সহসাই মাঠে ফিরছেন সাকিব, অপেক্ষা বাড়ল রুবেলের

মঙ্গলবার, ১৮ জুলাই ২০১৭

ক্রীড়া প্রতিবেদক : গত শুক্রবার আচমকা ছোট এক ইনজুরিতে পড়েছেন বিশ্বসেরা অল রাউন্ডার সাকিব আল হাসান। কখন কিভাবে ইনজুরিতে পড়েছেন বিষয়টি সবার অজানা হলেও প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হয়েছিল গুরুতর কিছু নয়। শেষ পর্যন্ত বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডও (বিসিবি) নিশ্চিত করেছে গুরুতর নয় সাকিবের এই চোট। ইনজুরির কারণে চলমান জাতীয় ক্যাম্পে যোগ দিতে পারেননি। ইংল্যান্ডে আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে খেলতে গিয়ে এক অদ্ভুতুরে ইনজুরিতে পড়েছিলেন পেসার রুবেল হোসেন। সেমিফাইনালে ভারতের বিপক্ষে ম্যাচের পরের ঘটনা। টিম মিটিং শেষে হোটেলে ফেরার পর রুমে ঢুকতে গিয়ে দরজায় ধাক্কা খান জোরে। সেই ধাক্কায় রুবেলের বাঁ চোখ আর কানের মাঝখানের হাড়ই কিছুটা সরে যায়। তাই দেশে ফিরেই গত ২১ জুন অস্ত্রোপচার করাতে হয় রুবেলকে। এরপর থেকে বিশ্রামে আছেন তিনি।

সাকিবের ইনজুরি নিয়ে বিসিবির সহকারী চিকিৎসক মুনিরুল আমিন হাওলাদার জানিয়েছেন, সাকিবের ইনজুরি উন্নতির দিকে আছে, ব্যথা আগের চেয়ে অনেক কমে গেছে এবং আমরা আশা করছি আগামী দু-একদিনের মধ্যে সে শরীরের ওপরের অংশের ব্যায়াম, তারপর লোয়ার বডি সাইক্লিং, ওয়ার্কিং শুরু করে দিতে পারবে। ইনজুরিতে যে দিন থেকে পড়েছে সে দিন থেকে বড়জোর ১০ দিন লাগবে সম্পূর্ণ সেরে উঠে কাজ শুরু করতে।

তবে সাকিব কোথায় কিভাবে ইনজুরিতে পড়েছেন তা খুলে বলেননি বিসিবির কেউ। এমনকি সাকিব নিজেও এ নিয়ে কথা বলেননি। গত ১০ জুলাই অস্ট্রেলিয়া-দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজকে সামনে রেখে জাতীয় দলের ক্যাম্প শুরু হয়েছে। প্রথম দিন থেকেই অনুশীলনে ছিলেন সাকিব। কিন্তু গত শনিবার খুঁড়িয়ে খুঁড়িয়ে বিসিবিতে ঢুকেছিলেন তিনি। বিষয়টি তখনই সবার দৃষ্টিগোচর হয়। আর তখন নানা গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়ে চারদিকে। কেউ-বা বলছেন অনুশীলনে আবার কেউ বলছেন বাড়িতেই ব্যথাটা পেয়েছেন সাকিব।

সাকিবের ইনজুরিতে পড়ার গল্প না বললেও তার ইনজুরির ধরন নিয়ে কথা বলেছেন চিকিৎসক মুনিরুল আমিন। তিনি বলেন, সাকিব ১৪ জুলাই গোড়ালিতে ব্যথা পেয়েছে। আমরা এটাকে লেফট অ্যাঙ্কেল স্ট্রেইন বলি। ওখানে দুই-একটা লিগামেন্টে ইনজুরি হয়েছে।

এটা গ্রেড ওয়ানে পড়ে। মানে খুবই সাধারণ একটা ইনজুরি। তো তাকে আমরা সাধারণ ট্রিটমেন্ট এবং আমাদের যে রিহ্যাব প্রোগ্রাম আছে সে প্রোগামে রেখেছি। সুতরাং মাঠ থেকে আপাতত পুরো বাইরে থাকছেন তিন ফরম্যাটেই বিশ্বের সেরা অল-রাউন্ডার সাকিব।

আগামী ৫ আগস্ট থেকে রুবেল আবার অনুশীলনে পুরোপুরি নেমে পড়তে পারবেন বলে আশা করছেন বিসিবির সহকারী চিকিৎসক মুনিরুল আমিন হাওলাদার।

মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে রুবেলের ইনজুরির বর্তমান অবস্থা নিয়ে বিসিবির সহকারী চিকিৎসক গতকাল সোমবার জানালেন, মুখে একটা জায়গমেটিক বোন আছে, ওখানে একটা ফ্র্যাকচার হয়েছে রুবেলের।

সেখানে অপারেশন হয়েছে। এর মধ্যে চার সপ্তাহের কাছাকাছি হয়ে গেছে। চার সপ্তাহ পর ধীরে ধীরে সে লোয়ার বডি থেকে রিহ্যাব প্রোগ্রাম শুরু করবে। ৬ সপ্তাহ পর পূর্ণ অনুশীলন শুরু করতে পারবে। আমরা আশা করছি, ৫ আগস্ট সে শুরু করতে পারবে।

অস্ত্রোপচারের দুদিন পরই বাসায় ফিরেছেন রুবেল। এরপর থেকেই বিশ্রামে আছেন তিনি। অনাকাক্সিক্ষত এ ইনজুরিতে পড়ে এবার ঈদের সময় গ্রামের বাড়ি বাগেরহাটে পরিবারের কাছেও যেতে পারেননি তিনি। মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে গত ১০ জুলাই থেকে শুরু হয়েছে টাইগারদের কন্ডিশনিং ক্যাম্প। সেখানেও নেই রুবেল। তবে আগামী সপ্তাহ থেকে রিহ্যাব প্রোগ্রাম শুরু করবেন জাতীয় দলে স¤প্রতি আবার বেশ নিয়মিত হয়ে ওঠা পেসার।

খেলা-ধূলা'র আরও সংবাদ