পুঁজিবাজারে সূচক ও লেনদেন কমেছে

মঙ্গলবার, ১৮ জুলাই ২০১৭

কাগজ প্রতিবেদক : সপ্তাহের দ্বিতীয় কার্যদিবসে দেশের উভয় শেয়ারবাজারে সূচকের নিম্নমুখী প্রবণতায় শেষ হয়েছে লেনদেন। এ দিন শুরু থেকে মিশ্র প্রবণতা থাকলেও দেড় ঘণ্টা পর সেল প্রেসারে টানা নামতে থাকে সূচক। গতকাল সোমবার সূচকের পাশাপাশি ৬৫.০৫ শতাংশ বা ২১৪টি কোম্পানির শেয়ার দর কমেছে। আর টাকার অঙ্কে লেনদেন আগের দিনের তুলনায় কিছুটা কমেছে। গতকাল দিন শেষে ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ১ হাজার ১৪৭ কোটি টাকা।

গত কয়েকদিনের ধারাবাহিক উত্থানের পর বিনিয়োগকারীদের মধ্যে মুনাফা তুলে নেয়ার ঝোঁক বিরাজ করে। কোনো শেয়ারে সামান্য লাভ থাকলেই তা বিক্রি করতে শুরু করেন তারা। এরই জের ধরে গতকালের বাজার কিছুটা নিম্নমুখী বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা। তবে এ অবস্থা খুব একটা স্থায়ী নয়। কেননা টানা পতন কিংবা টানা উত্থান কোনোটাই বাজারের জন্য ইতিবাচক নয়। তাই গত ২ দিনের উত্থানের পর কিছুটা দরপতন স্বাভাবিক। আর বাজারে এমন ধারা বিদ্যমান থাকলে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের পাশাপাশি সাধারণ বিনিয়োগকারীদেরও আস্থা ফিরে আসবে। এদিকে গতকালের লেনদেন হাজার কোটি পার হওয়ায় ইতিবাচক হিসেবে দেখছেন তারা।

দিনশেষে ডিএসইর ব্রড ইনডেক্স আগের দিনের চেয়ে ২০ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ৫৮২৪ পয়েন্টে। আর ডিএসই শরিয়াহ সূচক ৩ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১৩২৪ পয়েন্টে এবং ডিএসই-৩০ সূচক ০.৩৩ পয়েন্ট কমে অবস্থান করে ২১৩৩ পয়েন্টে। দিনভর লেনদেন হওয়া ৩২৯টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ৮২টির, কমেছে ২১৪টির আর অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৩টি কোম্পানির শেয়ার দর। যা টাকায় লেনদেন হয়েছে ১ হাজার ১৪৭ কোটি ৬০ লাখ ৭৯ হাজার টাকা।

এর আগে গত রোববার ডিএসই ব্রড ইনডেক্স আগের দিনের চেয়ে ৯ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করে ৫৮৪৪ পয়েন্টে। আর ডিএসই শরিয়াহ সূচক ০.৪১ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করে ১৩২৭ পয়েন্টে এবং ডিএসই-৩০ সূচক ২ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করে ২১৩৩ পয়েন্টে। ওইদিন লেনদেন হয় ১ হাজার ২৬৩ কোটি ৪৬ লাখ ৯৫ হাজার টাকা। সে হিসাবে গতকাল ডিএসইতে লেনদেন বেড়েছে ১১৫ কোটি ৮৬ লাখ ১৬ হাজার টাকা।

এদিকে দিনশেষে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) ব্রড ইনডেক্স ৪৫ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ১০ হাজার ৯০৫ পয়েন্টে। দিনভর লেনদেন হওয়া ২৬৯টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ৭৯টির, কমেছে ১৬৬টির ও দর অপরিবর্তিত রয়েছে ২৪টির। যা টাকায় লেনদেন হয়েছে ৬৩ কোটি ৫১ লাখ ১০ হাজার টাকা।

অর্থ-শিল্প-বাণিজ্য'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj