বানারীপাড়ায় মাটির রাস্তা দিয়ে যাতায়াতে ভোগান্তি

মঙ্গলবার, ১৮ জুলাই ২০১৭

বানারীপাড়া (বরিশাল) প্রতিনিধি : বানারীপাড়া উপজেলার ৮টি ইউনিয়নে রয়েছে অনেক মাটির রাস্তা। রাস্তাগুলো জনপ্রতিনিধিদের বহু আশ্বাসের পরেও আজ পর্যন্ত ইটের মুখ দেখেনি বলে জানান ভুক্তভোগী মানুষ। স্থানীয়রা জানান, উপজেলার সলিয়াবাকপুর ইউনিয়নের মাদারকাঠি গ্রামের চৌকিদারবাড়ি থেকে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় পর্যন্ত মাটির রাস্তাটি এভাবে বেহাল অবস্থায় থাকলেও স্থানীয় কোনো জনপ্রতিনিধিরা তা দেখছেন না। তাদের কাছে বহুবার আবেদন করলেও আজ পর্যন্ত আশ্বাস ছাড়া অন্য কিছু পাওয়া যায়নি। এই রাস্তা দিয়ে প্রাথমিকের শিশু শিক্ষার্থী, প্রসূতি মাসহ বয়স্কদের চলাচল করতে ভোগান্তির কোনো কমতি নেই। এই ৮টি ইউনিয়নে মাটির রাস্তা বাদেও পিচঢালা অনেক সড়ক রয়েছে যা মরণ ফাঁদে পরিণত হয়ে আছে। আবার অনেক সড়কের পিচ উঠে গিয়ে বর্তমানে তা মাটির রাস্তায় পরিণত হয়ে, যা দীর্ঘদিনেও পূর্ণ সংস্কার বা মেরামত করা হয়নি।

বানারীপাড়া উপজেলার মাঝ দিয়ে বয়ে যাওয়া সন্ধ্যা নদীর পশ্চিম জনপদের ৫টি ইউনিয়নে রয়েছে অসংখ্য পুল, কালভার্ট ও সাঁকো যা দিয়ে চলাচল করতে গেলে মানুষ রীতিমত আঁতকে ওঠে। এ ছাড়াও কাঁচা-পাকা অনেক সড়ক আছে যা ১৯৯০ দশকের পরে পূর্ণ সংস্কার বা কোনো প্রকার মেরামত করা হয়নি। এসব বিষয়ে সংশ্লিষ্ট জনপ্রতিনিধিরা জানান, জনগনের দুঃখ-দুর্দশা দেখার জন্যই আমরা। তাদের স্ব-স্ব ইউনিয়নে বিভিন্ন পর্যায়ের ৯৫ ভাগ উন্নয়নমূলক কাজ এরই মধ্যে শেষ করা হয়েছে। যেটুকু বাকি আছে তার জন্য বরাদ্দ চেয়ে আবেদন করা হয়েছে।

বরাদ্দ বা টেন্ডার হলেই কাজ শুরু করা হবে। ভারি বৃষ্টি হলেই খোদ পৌর শহরের সদর রোডসহ অনেক সড়কে হাঁটু পানি জমে চরম ভোগান্তির সৃষ্টি হয়। এর কারণ হিসেবে জানা গেছে, পরিকল্পনাহীন যত্রতত্র ড্রেনেজ ব্যবস্থা, নি¤œমানের কাজ ও অদক্ষ ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানকে দিয়ে উন্নয়ন প্রকল্প নির্মাণ করায় এবং পৌর কর্তৃপক্ষের যথাযথ তদারকির অভাবে মুখ থুবড়ে পড়ছে পৌরসভার সব ধরনের ড্রেনেজ ব্যবস্থা।

সারাদেশ'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj