স্ক্রাপ জাহাজ ভাঙায় হাইকোর্টের নিষেধাজ্ঞা

বুধবার, ৩০ আগস্ট ২০১৭

কাগজ প্রতিবেদক : বিদেশি জাহাজ স্ক্রাপ এমটি প্রডিউসারের পাইপে তেজস্ক্রিয়তা পাওয়ায় ওই জাহাজ ভাঙার ওপর ৫ অক্টোবর পর্যন্ত নিষেধাজ্ঞা জারি করেছেন হাইকোর্ট। পরিবেশ আইনবিদ সমিতির (বেলা) এক সম্পূরক আবেদনের শুনানি শেষে গতকাল মঙ্গলবার বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. জাহাঙ্গীর হোসেনের অবকাশকালীন বেঞ্চ এ আদেশ দেন। আদালতে বেলার পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী ফিদা এম কামাল, এ এম আমিন উদ্দিন, সৈয়দা রিজওয়ানা হাসান ও সাঈদ আহমেদ কবীর। জাহাজ মালিকের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী কামরুল হক সিদ্দিকী।

এডভোকেট সাঈদ আহমেদ কবির বলেন, পরিবেশ অধিদপ্তরের এক প্রতিবেদনে ওই জাহাজের পাইপে জেতস্ক্রিয় গামার কথা বলা হয়েছে। এটি নিয়ে সম্পূরক আবেদনের পর আদালত ৫ অক্টোবর পর্যন্ত ওই জাহাজ ভাঙায় নিষেধাজ্ঞা দিয়েছেন। মেসার্স জনতা শিপইয়ার্ড ওই জাহাজটি ভাঙার জন্য আমদানি করে।

এমটি প্রডিউসারকে আমদানি, সৈকতায়ন এবং ভাঙার অনুমতি দেয়ার বিরুদ্ধে বাংলাদেশ পরিবেশ আইনবিদ সমিতি হাইকোর্টে রিটের পর ৮ জুন ওই জাহাজের তেজস্ক্রিয়তা বিষয়ে প্রতিবেদন ১০ সপ্তাহের মধ্যে আদালতে দাখিলের নির্দেশ দিয়ে রুল জারি করেন আদালত। বাংলাদেশ পরমাণু শক্তি কমিশন, বাংলাদেশ পরমাণু শক্তি নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ এবং বাংলাদেশ কাস্টমসের মেগা পোর্ট ইনিশিয়েটিভকে এই নির্দেশ দেয়া হয়। একই সঙ্গে আদালত আমদানিকারকসহ মামলার ১৮ জন বিবাদীকে তিন সপ্তাহের মধ্যে এমটি প্রডিওসার নামের জাহাজের অনুক‚লে দেয়া ছাড়পত্র কেন বেআইনি ঘোষণা করা হবে না এবং কেন মিথ্যা ঘোষণা দেয়ার কারণে বিক্রেতার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেন।

দ্বিতীয় সংস্করন'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj