সংযুক্ত আরব আমিরাত : ভিসামুক্ত চলাচলের সুযোগ দাবি বাংলাদেশের

সোমবার, ১৮ ডিসেম্বর ২০১৭

কাগজ প্রতিবেদক : বাংলাদেশের সরকারি ও ক‚টনৈতিক পাসপোর্টধারীদের জন্য সংযুক্ত আরব আমিরাতে ভিসামুক্তভাবে চলাচলের সুযোগ সৃষ্টির আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

সংযুক্ত আরব আমিরাতের বিদায়ী রাষ্ট্রদূত সাঈদ বিন হাজার আল সেহি গতকাল রবিবার প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে তার সরকারি বাসভবন গণভবনে সৌজন্য সাক্ষাৎ করতে গেলে বিদায়ী এই ক‚টনীতিকের মাধ্যমে এ আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রীর তথ্য সচিব ইহসানুল করিম প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সংযুক্ত আরব আমিরাতের বিদায়ী রাষ্ট্রদূতের সাক্ষাৎকালে তাদের মধ্যকার আলোচিত বিষয়সমূহ সাংবাদিকদের কাছে বিস্তারিত তুলে ধরেন।

ইহসানুল করিম বলেন, সাক্ষাৎকালে সংযুক্ত আরব আমিরাতের বিদায়ী রাষ্ট্রদূতের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দুদেশের মধ্যে ‘গভর্নমেন্ট টু গভর্নমেন্ট’ সহযোগিতা বৃদ্ধির অংশ হিসেবে বাংলাদেশের সরকারি ও ক‚টনৈতিক পাসপোর্টের ক্ষেত্রে আরব আমিরাতে ভিসামুক্ত চলাচলের সুযোগ সৃষ্টির আহ্বান জানিয়েছেন।

প্রধানমন্ত্রী আহ্বানের পরিপ্রেক্ষিতে সংযুক্ত আরব আমিরাতের বিদায়ী রাষ্ট্রদূত বলেছেন, আগামী ফেব্রুয়ারি মাসে অনুষ্ঠেয় দুদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠকে বিষয়টি আলোচনা করা হবে।

প্রধানমন্ত্রী আরব আমিরাতের বিদায়ী রাষ্ট্রদূতকে জানান, বাংলাদেশ সরকার দেশের বিভিন্ন স্থানে ১০০টি অর্থনৈতিক অঞ্চল গড়ে তুলছে। এসব অর্থনৈতিক অঞ্চলে বিনিয়োগের জন্য পর্যাপ্ত জায়গা ও শিল্প গড়ে তোলার অবকাঠামো প্রস্তুত রয়েছে।

আরব আমিরাতের ব্যবসায়ীরা চাইলে সেখানে যে কোনো ধরনের শিল্প প্রতিষ্ঠান স্থাপনের সুযোগ নিতে পারে।

বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী বলেন, তার সরকারের লক্ষ্য ২০২১ সাল নাগাদ বিদ্যুৎ উৎপাদন ক্ষমতা ২৪ হাজার মেগাওয়াটে উন্নীত করে দেশের প্রত্যেক ঘরে বিদ্যুৎসেবা পৌঁছে দেয়া।

এ সময় চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়াতে বিশেষায়িত হাসপাতাল স্থাপন করার ব্যাপারে সংযুক্ত আরব আমিরাতের পুরাতন প্রস্তাবনাটি পুনরুজ্জীবিত করার আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী।

সাঈদ বিন হাজার আল সেহি তার দায়িত্ব পালনকালে বাংলাদেশ ও সংযুক্ত আরব আমিরাতের দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ককে আরো উচ্চতায় নিয়ে যাওয়ার জন্য তিনি প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানান। বৈঠকে প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব ড. কামাল আব্দুল নাসের চৌধুরী এবং প্রধানমন্ত্রীর সামরিক সচিব মিয়া মোহাম্মদ জয়নুল আবেদীন উপস্থিত ছিলেন।

দ্বিতীয় সংস্করন'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj