ভাঙ্গুড়ায় চড়া দামে গরম কাপড় বিক্রি

রবিবার, ১৪ জানুয়ারি ২০১৮

ভাঙ্গুড়া (পাবনা) প্রতিনিধি : ভাঙ্গুড়া উপজেলার পুরনো শীতের কাপড়ের ফুটপাতের দোকানগুলো এখন ক্রেতাদের ভিড়ে ভরপুর। গত বছরের তুলনায় এবারের পুরনো গরম কাপড়ের মূল্য তুলনামূলক বেশি হওয়ায় হতাশায় রয়েছেন নিম্ন আয়ের মানুষগুলো। ১৪-১৫ দিন ধরে জেঁকে বসেছে শীত। হিমালয় থেকে ধেয়ে আসা হিমেল হাওয়া শীতের তীব্রতা দিন দিন বেড়েই চলেছে। সন্ধ্যার পর থেকে ঘন কুয়াশার চাদরে ঢাকা এ উপজেলার ছিন্নমূল ও দরিদ্র শ্রেণির মানুষগুলোকে গরম কাপড়ের অভাবে দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। তাই তো মানুষগুলোর উপচেপড়া ভিড় লক্ষ করা গেছে পুরনো গরম কাপড় দোকানগুলোতে। ক্রেতা আনিছুর রহমান বলেন, অন্য দেশের তুলনায় বাংলাদেশের মানুষ বেশি গরিব ও অসহায়। সরকার মধ্যবিত্ত ও নিম্নবিত্তসহ সব শ্রেণির মানুষ যাতে গরম কাপড় কম মূল্যে ক্রয় করতে পারে সে জন্য উন্নত দেশ থেকে পুরনো গরম কাপড় আমদানি শুরু করেছে। যে সোয়েটারের মূল্য ছিল ৪০ থেকে ৫০ টাকা, সে সোয়েটার বর্তমানে ক্রয় করতে হচ্ছে ১৫০ থেকে ২০০ টাকায়। ১টি জ্যাকেট বা ১টি ভালো মানের সোয়েটারের মূল্য ছিল ২০০ থেকে ২৫০ টাকা। কিন্তু তা এখন বিক্রি হচ্ছে ৫০০ থেকে ৮০০ টাকা পর্যন্ত। তিনি আরো বলেন, শীত বেশি পড়ায় ব্যবসায়ীরা বর্তমানে লাভ কম হওয়ার কথা বলে সাধারণ ক্রেতাদের কাছ থেকে হাতিয়ে নিচ্ছে লাখ লাখ টাকা। শীতের প্রকোপ থেকে বাঁচাতে উপজেলার নিম্নবিত্ত, ছিন্নমূল ও দরিদ্র মানুষের একমাত্র অবলম্বন হচ্ছে ফুটপাতের পুরনো শীতবস্ত্র। কিন্তু এবার তুলনামূলক মূল্য বেশি হওয়ায় হতাশাগ্রস্ত হয়ে পড়েছেন এ অঞ্চলের জনগণ। শীতের তীব্রতা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে দুর্ভোগও বাড়ছে তাদের।

সারাদেশ'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj