ট্রাক-বাস সংঘর্ষ : সিলেটে একই পরিবারের নিহত ৩

রবিবার, ১৪ জানুয়ারি ২০১৮

সিলেট প্রতিনিধি : সিলেট-তামাবিল মহাসড়কে বাস-ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে শিশুসহ একই পরিবারের ৩ জন নিহত এবং ২০ জন আহত হয়েছেন।

গতকাল শনিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে জৈন্তাপুরের দরবস্ত এলাকায় এ দুর্ঘটনাটি ঘটে।

এদিকে এ দুর্ঘটনার জন্য সিলেট পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২ রাস্তার ওপর খাম্বা রাখাকে দায়ী করছে এলাকাবাসী। বারবার তাগিদ দিলেও খাম্বা সরায়নি কর্তৃপক্ষ। উপজেলা প্রশাসনও নীরব ছিল বলে অভিযোগ করা হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, সন্ধ্যায় সিলেট থেকে ছেড়ে আসা বিরতিহীন বাসের (সিলেট-জ-১১-০৪৬৮) সঙ্গে সিলেট পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২-এর খাম্বা বোঝাই ট্রাকের (চট্ট-মেট্রো-ট-১১-৫৯৯০) মুখোমুখি সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। ঘটনাস্থলে ১ শিশু ও দুই নারী মারা যান।

নিহতরা হলেন- মৌলভীবাজার জেলার শ্রীমঙ্গল উপজেলার ভাড়াউরা গ্রামের তপন তালুকদারের স্ত্রী শুক্লা রানী (২০), তার শিশুকন্যা ইতপা রানী (৫), শাশুড়ি অমকা রানী (৫৫)। নিহত শুক্লা রানী গোয়াইনঘাটে ব্র্যাকের রাধানগর ব্রাঞ্চে কর্মরত ছিলেন। আহতরা হলেন- হবিগঞ্জ জেলার বানিয়াচং উপজেলার মিলন (৩২), তার স্ত্রী শিপ্রা (২৩), জৈন্তাপুর উপজেলা দরবস্ত ইউনিয়নের ভাইট গ্রামের মৃত সাইফ উল্লার ছেলে হাবিবুর রহমান (৫০)। অন্যদের নাম-পরিচয় জানা যায়নি।

জৈন্তাপুর মডেল থানার ওসি খান মো. মাইনুল জাকির ঘটনাস্থল থেকে জানান, নিহতদের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সিলেট ওসমানী হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

অন্যদিকে এ ঘটনার পর স্থানীয় জনতা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২-এর অফিসের সামনে বিক্ষোভ করে।

এই জনপদ'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj