বন্ধুর রান্নাঘরের মেঝে খুঁড়ে নিখোঁজ ব্যক্তির লাশ উদ্ধার

রবিবার, ১৪ জানুয়ারি ২০১৮

কাউনিয়া (রংপুর) প্রতিনিধি : নিখোঁজের ২৭ দিন পর কাউনিয়া উপজেলার হারাগাছ পৌর এলাকায় বন্ধুর বাড়ির রান্নাঘরের মেঝে খুঁড়ে দাদন ব্যবসায়ী সিরাজুল ইসলামের (৪০) লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। গতকাল শনিবার দুপুর আড়াইটার দিকে হারাগাছ পৌরসভার হকবাজার মালিয়াটারী এলাকার কামার ফরিদুল ইসলামের রান্নারঘরের মেঝে খুঁড়ে লাশটি উদ্ধার করা হয়। নিহত সিরাজুল মালিয়াটারী কানাটারী গ্রামের মফেল উদ্দিলের ছেলে। এ ঘটনায় মালিয়াটারী গ্রামের কামার ফুল বাবুর ছেলে ঘাতক ফরিদ হোসেন (৩৩) ও তার স্ত্রী মিনি বেগম মিষ্টিকে (২৫) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

জানা গেছে, গত ১৭ ডিসেম্বর রাত সাড়ে ৮টার দিকে সিরাজুল বাজারে যান। এরপর আর ফিরে আসেননি। এ ব্যাপারে কাউনিয়া থানায় একটি জিডি দায়ের করা হয়। জিডির সূত্র ধরে তথ্যপ্রযুক্তির মাধ্যমে কাউনিয়া থানা পুলিশ অনুসন্ধান চালায়। কাউনিয়া থানা পুলিশের এসআই সুলতান আলী জানান, জিডির সূত্র ধরে শুক্রবার রাতে ঘাতক ফরিদকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। সে হত্যাকাণ্ডের কথা স্বীকার করে এবং তার স্ত্রীও এ ঘটনায় জড়িত বলে জানায়। ওই রাতে মিনি বেগম মিষ্টিকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে তাদের দেয়া স্বীকারোক্তি অনুযায়ী শনিবার দুপুর আড়াইটার দিকে নিখোঁজ সিরাজুলের লাশ ফরিদের বাড়ির রান্নাঘরের মেঝে খুঁড়ে উদ্ধার করা হয়।

নিহতের বাবা মফেল উদ্দিন বলেন, তার ছেলে দাদন ব্যবসায় জড়িত ছিল। টাকার জন্য তার ছেলেকে হত্যা করা হয়েছে। তিনি হত্যাকারীদের শাস্তির দাবি জানান।

কাউনিয়া থানার ওসি মামুন অর রশিদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে তিনি জানান।

শেষ পাতা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj