তালহা হত্যা : মূল সন্দেহভাজন বন্দুকযুদ্ধে নিহত

শনিবার, ৭ এপ্রিল ২০১৮

কাগজ প্রতিবেদক : রাজধানীর ওয়ারীতে পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ রাকিব (২২) নামে এক যুবক নিহত হয়েছে। এ সময় ২ জনকে আটক করেছে পুলিশ। গত বৃহস্পতিবার গভীর রাতে ওয়ারীর জয়কালী মন্দির এলাকার হোমিও কলেজের পেছনে এ ঘটনা ঘটে। পুলিশের দাবি, নিহত রাকিব ড্যাফোডিল বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র খন্দকার আবু তালহা হত্যার প্রধান সন্দেহভাজন।

নিহতের নানা আবদুল লতিফ বলেন, রাকিব জয়কালী মন্দির রোডের সুপার হোটেল গলিতে পরিবারের সঙ্গে থাকত। বুধবার রাতে পরিবারের সঙ্গে রাতের খাবার খাচ্ছিল রাকিব। এ সময় এসআই জোতিশ এসে বলে ওসি স্যার রাকিবকে যেতে বলেছে। পরিবারের লোকজন কারণ জানতে চাইলে এসআই জানান, তেমন কিছু না। একটু পরেই দিয়ে যাব। কিন্তু গতকাল তারা জানতে পারেন বন্দুকযুদ্ধে রাকিব নিহত হয়েছে। আবদুল লতিফের অভিযোগ, রাকিবের বয়স মাত্র ১১ বছর। এত কম বয়সে সে কী ধরনের অপরাধ করল যে ক্রসফায়ার দিতে হবে।

এ দিকে পুলিশ সুরতহাল প্রতিবেদনে রাকিবের বয়স ২২ উল্লেখ করায় বয়স নিয়ে বিভ্রান্তি দেখা দিয়েছে। এ বিষয়ে রাকিবের বড় বোন চাঁদনী বলেন, তার নিজের বয়স ১৬। তার ছোট ভাই রাকিবের বয়স ১১ বছর। তার ভাইয়ের নামে এলাকায় কোনো খারাপ রিপোর্টও নেই বলে দাবি তার।

ওয়ারী থানার এসআই আবদুল খালেক বলেন, একদল ডাকাত জয়কালী মন্দির এলাকায় ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছে- এমন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালানো হয়। ডাকাত দল পুলিশের উপস্থিতি দেখে পালানোর সময় পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। পুলিশও পাল্টা গুলি করলে রাকিব নামে একজন আহত হয়। পরে তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক গতকাল ভোর ৪টার দিকে মৃত ঘোষণা করেন। অভিযানের সময় নিহত রাকিবের দুই সঙ্গী মো. জাকির (২০) ও মো. ধলাকে (১৮) আটক করা গেলেও ওই দলের কয়েকজন পালিয়ে যায়। আটককৃতদের কাছ থেকে ২টি চাপাতি, ২টি ছোরা ও ১টি চাকু উদ্ধার করা হয়েছে। এ বিষয়ে মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

ওয়ারী থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) মো. সেলিম মিয়া জানান, গত বছরের অক্টোবরে ড্যাফোডিল ইউনিভার্সিটির ছাত্র আবু তালহা হত্যা মামলার মূল সন্দেহভাজন রাকিব। তালহা হত্যার ৯ দিন পর বেলাল হোসেন সবুজ ও আব্দুর রহমান মিলন নামের দুই ছিনতাইকারীকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। আদালতে তাদের দেয়া স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতেও রাকিবের নাম উঠে আসে। এ ছাড়া গত ১ এপ্রিল রাতে জয়কালী মন্দির এলাকায় যুবক খুন হয়, ওই ঘটনায় ২ তারিখ যে মামলা হয়েছে সেখানেও প্রধান আসামি সে।

প্রথম পাতা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj